Categories
বিনোদন

টিআরপি তালিকায় বড়সড় অঘটন! ঋদ্ধি-খড়ির রোমান্সে সিংহাসন দখল গাঁটছড়ার, জায়গা হারাল মিঠাই

ফের বিরাট রদবদল টিআরপি (TRP) তালিকায়! দীর্ঘদিন ধরে রাজত্ব করেও শেষরক্ষা করতে পারল না ‘মিঠাই’ (Mithai) ধারাবাহিকটি। এমনকি সেরা তিনেও জায়গা করতে পারল না। এমনিতেই বাংলা টেলিভিশন চ্যানেলগুলিতে বিভিন্ন ধারাবাহিকের মধ্যে টিআরপি নিয়ে লড়াই চলতে থাকে। প্রত্যেক সপ্তাহে টিআরপি রেটিংকে ধরে রাখার এই লড়াই জারি থাকে বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিকগুলির মধ্যে। এই সপ্তাহের টিআরপি তালিকায় দেখা যাচ্ছে অন্য সমস্ত ধারাবাহিকগুলিকে পিছনে ফেলে সেরার শিরোপা ছিনিয়ে নিয়েছে ‘গাঁটছড়া’ (Gaantchhora) ধারাবাহিকটি। ফ্যাশন রাম্পে হেঁটেই বাজিমাত করল খড়ি-দ্যুতিরা।

চলতি সপ্তাহের টিআরপি তালিকায় বেঙ্গল টপার হওয়া ‘মিঠাই’ ধারাবাহিকটি চ্যানেল টপারও হতে পারেনি। নতুন সপ্তাহে স্বমহিমায় ফিরে এসেছে ‘গাঁটছড়া’ ধারাবাহিকটি।টিআরপি রেটিংয়ে ৮.২ নম্বর পেয়ে ধারাবাহিকটি সপ্তাহের সেরা হয়েছে। অন্যদিকে সবাইকে চমকে দিয়ে ৮.০ নম্বর নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ‘গৌরী এলো’ ধারাবাহিকটি। ৭.৪ নম্বর নিয়ে তৃতীয় স্থান দখল করেছে ‘আলতা ফড়িং’। ব্যাঙ্কবাবুকে কী ভাবে বিপদের হাত থেকে ফড়িং রক্ষা করবে সেই নিয়েই জমে উঠেছে ধারাবাহিকটি। ৭.২ নম্বর নিয়ে চতুর্থ স্থানে রয়েছে ‘মিঠাই’ ধারাবাহিকটি। অন্যদিকে ৭.১ নম্বর নিয়ে ‘ধুলোকণা’ ধারাবাহিকটি রয়েছে পঞ্চম স্থানে। ৬.৮ নম্বর পেয়ে ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে ‘লক্ষ্মী কাকিমা সুপারস্টার’ ধারাবাহিকটি।

নীচে এক নজরে দেখে নেওয়া যাক চলতি সপ্তাহের সেরা দশ ধারাবাহিকের রেটিং তালিকা :-

প্রথম :- গাঁটছড়া (৮.২)
দ্বিতীয় :- গৌরী এলো (৮.০)
তৃতীয় :- আলতা ফড়িং (৭.৪)
চতুর্থ :- মিঠাই (৭.২)
পঞ্চম :- ধুলোকণা (৭.১)
ষষ্ঠ :- লক্ষ্মী কাকিমা সুপারস্টার (৬.৮)
সপ্তম :- জগদ্ধাত্রী ও অনুরাগের ছোঁয়া (৬.৪)
নবম :- সাহেবের চিঠি ও খেলনা বাড়ি (৫.৯)
দশম :- মাধবীলতা (৫.৭)

Categories
বিনোদন

অসুস্থ হয়েও পুরোদমে শুটিং চালিয়ে গেলেন মিঠাই, সৌমিতৃষাকে কুর্নিশ জানাল নেটিজেনরা

বিগত বেশ কিছুদিন ধরে বেশ অসুস্থ জি বাংলার (Zee Bangla) ’মিঠাই’ (Mithai) খ্যাত অভিনেত্রী সৌমিত্রিষা কুণ্ডু (Soumitrisha Kundu)। প্রিয় অভিনেত্রীর অসুস্থতার খবরে বেশ মুষড়ে পড়ছেন অনুরাগীরা।

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিকগুলোর মধ্যে বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় মিঠাই ধারাবাহিকটি। টিআরপি তালিকাতেও শীর্ষে রয়েছে এই ধারাবাহিক। মোদক পরিবারের সুখের দুঃখের কাহিনীর পাশাপাশি গ্রামের মেয়ে মিষ্টি বিক্রেতা মিঠাইয়ের এই মোদক পরিবারের বৌ হয়ে ওঠার কাহিনীও দর্শকদের বেশ মনে ধরেছে। প্রথমদিকে সিরিয়ালের গল্প অনুযায়ী নায়ক সিদ্ধার্থের সাথে গল্পের নায়িকা মিঠাইয়ের মধ্যে সদ্ভাব না থাকলেও বর্তমানে এই জুটি দর্শকদের কাছে বেশ জনপ্রিয়। এই সিরিয়ালের দৌলতে মিষ্টি সুন্দরী সৌমিত্রিষা এখন দর্শকদের নয়নের মণি।

কিছুদিন আগে কান নিয়ে রক্তাক্ত অবস্থা হয়েছিল নায়িকার। বর্তমানে জ্বরে অসুস্থ হয়ে গিয়েছেন তিনি। সংবাদসূত্রের খবর, জ্বর কমলেও বেশ দুর্বল রয়েছেন। তবে শারীরিক অসুস্থতা সত্ত্বেও শুটিং বন্ধ করেননি সকলের প্রিয় মিঠাই। সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে নায়িকা জানিয়েছেন, শরীরে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা কমে গিয়েছে। এমনকি তাঁর লো ব্লাড প্রেসার হয়ে গিয়েছে জ্বরের কারণে। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী, বিশ্রাম নিলেও শুটিংয়ে আসা বন্ধ করেননি। তাঁর শারীরিক অবস্থার কারণে প্রযোজনা সংস্থাও তাঁকে অনুরোধ করেছিল ছুটি নিতে । কিন্তু ভক্তদের কথা ভেবে আপাতত কাজেই মন দিয়েছেন নায়িকা।

চলতি সপ্তাহেও টিআরপি তালিকায় নিজের শীর্ষস্থান বজায় রাখতে পেরেছিল মিঠাই। তাই শারীরিক অসুস্থতাকে অগ্রাহ্য করে সেই স্থান বজায় রাখার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে ‘তুফানমেল’। নতুন খলনায়িকা হিসাবে কাউন্সিলর প্রমীলা সাহার (Pramila Saha) আগমনে বর্তমানে গল্পের মোড় অনেকটাই ঘুরে গিয়েছে। ওমি আগরওয়ালের (Omi Agarwal) মৃত্যুর পরেই প্রবেশ ঘটেছে নতুন এই চরিত্রটির। ষ্টার জলসার (Star Jalsha) ‘আয় তবে সহচরী’ (Aay Tobe Sohochori) খ্যাত অভিনেত্রী অরিজিতা মুখোপাধ্যায় (Arijita Mukherjee) রয়েছেন নাম ভূমিকায়। এমন পরিস্থিতে মিঠাই কি করে বিশ্রাম নেবে?? ‘গোপালের হেলেপে’ আপাতত নতুন খলনায়িকার মোকাবিলা করতে ব্যস্ত সবার প্রিয় ‘মিঠাইরানী’।

আট মাস আগে যাত্রা শুরু হয়েছিল মিঠাইয়ের। এই কয়দিনে দর্শকদের খুব প্রিয় ধারাবাহিকে পরিণত হয়েছে এটি। সিরিয়ালের সাথে সাথে বৃদ্ধি পেয়েছে কলাকুশলীদের জনপ্রিয়তাও। এখন সৌমিত্রিষার অসংখ্য অনুরাগীরা তাঁর আরোগ্য কামনা করছেন।

Categories
বিনোদন

অন্তিম সপ্তাহেও পরাজিত ‘মন ফাগুন’, শীর্ষস্থানে ‘মিঠাই’ নাকি অন্যকেউ? রইল TRP তালিকা

সপ্তাহের চতুর্থদিনে প্রকাশিত হল বাংলা সিরিয়ালের টিআরপি (TRP) তালিকা। তালিকায় বেশ কিছু পরিবর্তন দেখা গিয়েছে যা বেশ চাঞ্চল্যকর।

বেশ কিছুদিন ধরেই টিআরপি তালিকায় বেশ অদল বদল দেখা যাচ্ছিল। শেষ সপ্তাহেও তা অব্যাহত। এর আগে জি বাংলার (Zee Bangla) অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘মিঠাই’ (Mithai) নিজের শীর্ষস্থান হারিয়েছিল। এতে খুব মুষড়ে পড়েছিলেন অনুরাগীরা। কিন্তু খলনায়ক ওমি আগরওয়ালের মৃত্যু, মোদক পরিবারে বোম্ব থাকার কাহিনী এবং সর্বোপরি নায়ক সিদ্ধার্থের জেলে যাওয়ার কারণে মিঠাই সিরিয়ালের গত কয়েকটি এপিসোড ছিল টানটান উত্তেজনায় ভরপুর। গোপালের আশীর্বাদে এই সপ্তাহেও আগের বারের স্থান ধরে রাখতে পেরেছে এই ধারাবাহিকটি। সদ্য প্রকাশিত টিআরপি তালিকায় প্রথমস্থানে রয়েছে মিঠাই। তবে দ্বিতীয় এবং তৃতীয় স্থানে চমকে দেওয়ার মতো পরিবর্তন দেখতে পাওয়া গিয়েছে।

ষ্টার জলসার (Star Jalsha) ‘গাঁটছড়া’কে (Gaatchora) হারিয়ে দিয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে ‘গৌরী এলো’ (Gouri Elo) ধারাবাহিকটি। ঈশান এবং গৌরিকে নিয়ে বর্তমানে যে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে তার ফলেই এই উত্থান বলে মনে করা হচ্ছে। অন্যদিকে ‘আলতা ফড়িং’ (Aalta Phoring) উঠে এসেছে তৃতীয় স্থানে। চতুর্থ স্থান নিয়েই এই সপ্তাহে সন্তুষ্ট থাকতে হলো ঋদ্ধি -খড়ির ‘গাঁটছড়া’কে (Gaatchora) । ‘মন ফাগুন ধারাবাহিকের (Mon Phagun) দর্শকদের জন্য এই সপ্তাহটি বেশ খারাপ। কারণ আগের সপ্তাহে অষ্টম স্থানে ছিল এই ধারাবাহিকটি। এই সপ্তাহেও সেই একই স্থানে রয়েছে ঋষি-পিহু জুটি। অন্যদিকে এই সপ্তাহেও ‘লক্ষী কাকিমা সুপারস্টার’(Lokkhi Kakima Superstar) ধারাবাহিকের স্থান অপরিবর্তিত, তবে নম্বর আগের সপ্তাহের থেকে কিছুটা কমেছে । এই সপ্তাহে প্রথম দশে উঠে এসেছে ইন্দ্র এবং মিতুলের ‘খেলনা বাড়ি’ (Khelna Bari) ধারাবাহিকটি।

এক নজরে রইল এই সপ্তাহের টিআরপি তালিকা:-

প্রথম – মিঠাই -৮.৩
দ্বিতীয় – গৌরী এলো – ৭.৯
তৃতীয় – আলতা ফড়িং – ৭.৫
চতুর্থ – গাঁটছড়া – ৭.৪
পঞ্চম – লক্ষী কাকিমা সুপারস্টার -৭.১
ষষ্ঠ – ধূলোকণা – ৬.৭
সপ্তম -উমা -৬.৪
অষ্টম- মন ফাগুন ,অনুরাগের ছোঁয়া -৬.৩
নবম- এই পথ যদি না শেষ হয় – ৫.৬
দশম – খেলনা বাড়ি -৫.৫

Categories
বিনোদন

শুটিংয়ের সময় রক্তাক্ত কাণ্ড! ফের চোটের কবলে সকলের প্রিয় মিঠানরানি, মন খারাপ ভক্তদের

শুটিংয়ের সময় কানে চোট পেলেন’ মিঠাই’ (Mithai)খ্যাত সৌমিত্রিষা কুণ্ডু (Soumitrisha Kundu) । ইনস্টাগ্রামে সেই ছবি পোস্ট করতেই মিঠাই অনুরাগীদের মন বেশ খারাপ হয়ে গিয়েছে ।

মিঠাই ধারাবাহিকের কলাকুশলীদের চোট আঘাতের সমস্যা এখন লেগেই রয়েছে। কিছুদিন আগে চোট পেয়েছিলেন ওমি আগরওয়াল (Omi Agarwal) খ্যাত অভিনেতা জন ভট্টাচার্য (John Bhattacharya)। এইবার মিঠাইয়ের পালা। কিছুদিন আগে শখ করে কান ফুটিয়েছিলেন মিঠাই। অন্যমনস্ক হয়ে কানের দুল খুলতে গিয়ে রক্তাক্ত কাণ্ড ঘটে। এর পিছনে নিজের কেয়ারলেস মনকেই দায়ী করেছেন অভিনেত্রী। কান ফোটানোর পরে তিনি চিন্তায় ছিলেন কোন কারণে যাতে কানের ফুটো বন্ধ না হয়ে যায়। সেই ভয়ে কান ভালো করে শুকোনোর আগেই সোনার দুল পড়তে শুরু করেছিলেন। তার ফলেই আজকে এই বিপত্তি বলে সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন সৌমিতৃষা । প্রচণ্ড রক্তক্ষরণের পরে এখন কান তাঁর বেশ ফুলে রয়েছে। তবে ডাক্তারের নির্দেশ মতো প্রয়োজনীয় ওষুধ খাচ্ছেন। কিছুদিন বিশ্রাম নিলে অভিনেত্রীর কান আবার ঠিক হয়ে যাবে বলে আশা করছেন ভক্তরা। তবে উদ্বেগ এখনো কাটছে না তাঁদের ।

মিঠাই ধারাবাহিকের কারণে খুব অল্প সময়েই দর্শকদের মনে আলাদা জায়গা করে নিতে পেরেছেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় অসংখ্য অনুরাগী তাঁর। ধারাবাহিকের সাথে সাথে তাঁর জনপ্রিয়তাও প্রতিদিনই বাড়ছে। এখন টেলি অভিনেতা অভিনেত্রীরা ঘরের মানুষ হয়ে গিয়েছেন দর্শকদের। তাঁদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও বেশ ওয়াকিবহাল তাঁরা। তাঁদের জীবনের যেকোন ছোট খাটো ঘটনাই চর্চার বিষয়ে পরিণত হয়। মিঠাইয়ের ক্ষেত্রেও এর ব্যতিক্রম ঘটেনি। ইনস্টাগ্রামে মিঠাইয়ের রক্তাক্ত ছবি নিমেষেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। অনুরাগীরাও নিজেদের প্রিয় অভিনেত্রীকে এইভাবে দেখে স্বভাবতই আকুল হয়ে উঠেছেন আসল কারণ জানতে। তবে তাঁদের হতাশ করেননি অভিনেত্রী। হাজার ব্যস্ততার মধ্যেও টেলিফোনের মাধ্যমে এক সাক্ষাৎকারে সবিস্তারে ঘটনাটি জানিয়েছেন।

Categories
বিনোদন

TRP: জন্মাষ্টমীতে মিঠাইকে বাঁচিয়ে দিল গোপাল ঠাকুর, একটুর জন্য সিংহাসন হাতছাড়া গাঁটছড়ার

জন্মাষ্ঠমীর দিনই গোপালের আশীর্বাদে আবার টিআরপি (TRP) তালিকায় শীর্ষে উঠে এলো জি বাংলার (Zee Bangla) জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘মিঠাই’ (Mithai)। এই সপ্তাহের টিআরপি তালিকাতেও এসেছে অনেক বড়োসড়ো পরিবর্তন।

মোদক পরিবারকে বোম্ব দিয়ে উড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছিল ওমি আগরওয়াল। তার সেই পরিকল্পনা সফল না হলেও এইকারণে মিঠাই আবার টিআরপি তালিকায় প্রথম স্থান দখল করে নিয়েছে। অন্যান্যবারের মতো এই সপ্তাহের প্রকাশিত টিআরপি তালিকার বদল বেশ চোখে পড়ার মতো। শীর্ষস্থান পেলেও মিঠাই ধারাবাহিকের প্রাপ্ত নম্বর আগের থেকে অনেকটাই কমে গিয়েছে। অন্যদিকে ষ্টার জলসার (Star Jalsha) ‘গাঁটছড়া’ (Gaatchora) ধারাবাহিকটি দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে। ঋদ্ধি এবং খড়ির হানিমুনের কারণেই এই উত্থান বলে মনে করছেন অনেকে । আগের সপ্তাহের থেকে বেশি নম্বর পেয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ‘গৌরী এলো’ (Gouri Elo) ধারাবাহিকটি। চলতি মাসেই শেষ হতে চলেছে জনপ্রিয় দুই মেগা ধারাবাহিক ‘উমা’ (Uma) এবং ‘মন ফাগুন’(Mon Phagun)। এই সপ্তাহের টিআরপি তালিকায় যথাক্রমে সপ্তম এবং অষ্টম তালিকায় রয়েছে ধারাবাহিক দুটি। নতুন এই তালিকায় বেশ ভালো জায়গায় রয়েছে জি বাংলার আরেকটি ধারাবাহিক ‘লক্ষী কাকিমা সুপারস্টার’ (Lokkhi Kakima Superstar)।

প্রথমদিকে টিআরপি তালিকায় জায়গা না পেলেও এই সপ্তাহে ৭.৬ নম্বর পেয়ে পঞ্চম স্থানে রয়েছে এই ধারাবাহিকটি। লালন -ফুলঝুরির ‘ধূলোকণা’ (Dhulokona) তুলনামূলকভাবে বাকিদের থেকে বেশ পিছিয়ে পড়েছে। এই সপ্তাহে ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে এই ধারাবাহিকটি। উর্মি এবং সাত্যকির টানটান রোমহর্ষক কাহিনীর দৌলতে প্রথম দশে জায়গা করে নিয়েছে ‘এই পথ যদি না শেষ হয়’ (Ei Poth Jodi Na Sesh Hoy)।
এক নজরে রইল এই সপ্তাহের টিআরপি তালিকা:-

প্রথম – মিঠাই -৮.৩
দ্বিতীয় -গাঁটছড়া -৮.১
তৃতীয় – গৌরী এল -৮.০
চতুর্থ – আলতা ফড়িং – ৭.৮
পঞ্চম – লক্ষী কাকিমা সুপারস্টার -৭.৬
ষষ্ঠ – ধূলোকণা – ৬.৭
সপ্তম -উমা -৬.৫
অষ্টম- মন ফাগুন -৬.৪
নবম- অনুরাগের ছোঁয়া -৬.৩
দশম -এই পথ যদি না শেষ হয় -৫.৮

Categories
বিনোদন

খলনায়ক হয়েও জিতেছেন সকলের মন, মিঠাইয়ের শেষ শুটিংয়ে গুরুতর আহত ওমি আগরওয়াল

শুটিং চলাকালীন গুরুতরভাবে আহত হলেন অভিনেতা জন ভট্টাচার্য (John Bhattacharya)। সংবাদসূত্রে খবর আঘাত লাগার পরেও শুটিং শেষ করেছেন ‘মিঠাই’ (Mithai) ধারাবাহিকের ওমি আগারওয়াল (Omi Agarwal)।

জি বাংলার (Zee Bangla) জনপ্রিয় এই ধারাবাহিকের প্রধান চরিত্র সিদ্ধার্থ (Siddharth) এবং মিঠাইয়ের (Mithai ) জীবন দুর্বিষহ করতে হাজির হয়েছিল ওমি। মিঠাই -সিডের ব্যক্তিগত সম্পর্ক মধুর হওয়ার আগে থেকেই এদের জীবনে আবির্ভাব ঘটে এই খলনায়কের। তবে সিরিয়ালের গল্প অনুযায়ী কয়েকটি এপিসোডের পরেই শেষ হতে চলেছে ওমি চরিত্রটি । কিন্তু শেষের আগেই মোক্ষম কামড় দিয়েছে ওমি। মোদক বাড়িকে বোম্ব দিয়ে উড়িয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে সে। বর্তমানে এই নিয়েই মিঠাইয়ের টানটান এপিসোড চলছে। অবশেষে বোম্ব স্কোয়াডের সাহায্য ছাড়াই সিদ্বার্থ প্লাস দিয়ে বোম্ব নিষ্ক্রিয় করতে সক্ষম হয়েছে। এখন মোদক পরিবারে খুশির হাওয়া বইলেও গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায় ওমি।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Shaurja Batyacharyya (@john00240)

শেষের দিকের এই দৃশ্যটির শুটিং করতে গিয়েই আঘাত পেয়েছেন ওমিরুপী জন। গুলির বারুদের কারণে আঙুলে রক্তক্ষরণ হয়েছে। পায়েও যথেষ্ট আঘাত পেয়েছেন অভিনেতা। তবে চোট আঘাত নিয়েই শুটিং শেষ করেছেন। এই সিরিয়ালের মধ্যে দিয়েই প্রথমবার খলনায়ক রূপে ধরা দিলেন সুদর্শন এই নায়ক। এইকারণে মনে বেশ কিছুটা সন্দেহ নিয়েই শুরু করেছিলেন এই চরিত্রে অভিনয় করা। দর্শকরা মনে মনে তাঁকে বেশ অপছন্দ করলেও এটাই তাঁর অভিনয়য়ের সফলতা বলে মনে করছেন জন।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Shaurja Batyacharyya (@john00240)

পর্দায় সম্পর্ক খারাপ হলেও বাস্তবে মিঠাই ধারাবাহিকের সবার সাথে বেশ ভালো সময় কাটিয়েছেন বলে সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন অভিনেতা। সেই কারণে চরিত্রটি শেষ হয়ে যাওয়ায় অভিনেতার সাথে সাথে বাকি কলাকূশলীদেরও মন খারাপ। আহত হলেও বর্তমানে অভিনেতার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানা গিয়েছে।

Categories
বিনোদন ভাইরাল ভিডিও ভিডিও

গৃহবধূর খোলস ছেড়ে ওয়েস্টার্ন পোশাকে ঝড় তুললেন মিঠাই, সৌমিতৃষার হটনেসে কুপোকাত ভক্তরা

জি বাংলার ‘মিঠাই’ (Mithai) বাংলা ছোটপর্দার জগতে বর্তমানের এক অত্যন্ত জনপ্রিয় ধারাবাহিক। দর্শকদের মনে নিজের জায়গা তৈরি করে নেওয়ার পাশাপাশি একটানা ৪৬ সপ্তাহ ধরে এই ধারাবাহিক টিআরপি তালিকায় প্রথম স্থান দখল করে রেকর্ড গড়ে ছিল। এরপরে প্রথম স্থান হাতছাড়া ‘মিঠাই’ বরাবর টিআরপি তালিকায় প্রথম পাঁচ স্থানের মধ্যেই জায়গা ধরে রেখেছে। চিত্রনাট্য আবারও টানটান উত্তেজনাপূর্ণ হ‌ওয়ার ফলে গত দুই সপ্তাহের টিআরপি তালিকায় এই ধারাবাহিক প্রথম স্থান ছিনিয়ে নিয়েছে।

ধারাবাহিকে হঠাৎই মুখ্য চরিত্র ‘মিঠাই’-এর বুকে গুলি লেগে যায় ও সে মৃত্যুর সঙ্গে লড়তে থাকে, উচ্ছেবাবুকে ওমি আগর‌ওয়ালের হাত থেকে বাঁচাতে গিয়েই এমন ঘটনা ঘটে। প্রিয় চরিত্রকে এমন অবস্থায় দেখে দর্শকেরাও রীতিমতো মুষড়ে পড়েছিলেন। বস্তুত ‘মিঠাই’ চরিত্রের অভিনেত্রী সৌমিতৃষা কুন্ডু (Soumitrisha Kundoo) বর্তমানে বাংলা বিনোদন জগতের এক অন্যতম জনপ্রিয় তারকা। পর্দার পাশাপাশি বাস্তবেও তিনি ভীষণ জনপ্রিয়। ইনস্টাগ্রামে তাঁর অফিশিয়াল অ্যাকাউন্টের বর্তমান ফলোয়ার্স সংখ্যা ৭ লাখ ৩০ হাজার, ফেসবুকেও তাঁকে ১ লাখ ৩৬ হাজারেরও বেশি মানুষ ফলো করেন। বিভিন্ন পোশাকে বিভিন্ন লুকে তিনি নিয়মিত নিজের ছবি-ভিডিও পোস্ট করে থাকেন।

সম্প্রতি নেটদুনিয়ায় সৌমিতৃষার এক নতুন লুক আবারও ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। এক টাইট-ফিটেড কালো রঙের থাই-স্লিটেড গাউন ও ঊর্ধাঙ্গে কালো রঙের কলার দেওয়া ডিপ নেক ঢিলেঢালা ক্রপ টপ পরে হাই পনিটেল বেঁধে তিনি ক্যামেরার সামনে নানারকম পোজ দিয়েছেন। এই স্টাইলিশ পোশাকের সঙ্গে সৌমিতৃষা মানানসই পাথরখচিত ইয়ার স্টাড, ব্রেসলেট ও নেকলেস পরে দারুণ মেকআপে নিজেকে সাজিয়েছেন এবং সোনালী রঙের হিলতোলা জুতো পরেছেন। জনপ্রিয় হিন্দি গান ‘তুমহে যো ম্যায়নে দেখা’ (Tumhe Jo Maine Dekha)-এর সাথে অভিনেত্রীর সৌন্দর্য্য, হটনেস, দারুণ দারুণ পোজ ও ঘায়েল করা এক্সপ্রেশন নেটিজেনদের মুগ্ধ করেছে। ফেসবুকে সৌমিতৃষার অ্যাকাউন্ট থেকে পোস্ট হ‌ওয়া এই ভিডিওটি পোস্ট হ‌ওয়ার পর খুব কম সময়েই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে, ইতিমধ্যেই ৯১ হাজার মানুষ ভিডিওটি দেখে ফেলেছেন।

Categories
বিনোদন ভাইরাল ভিডিও ভিডিও

লাইভ শোয়ে উচ্ছেবাবুর কথা মনে পড়তেই চোখে জল মিঠাইয়ের, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে টেলিভিশনের জি বাংলার পর্দায় একটি অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক হলো ‘মিঠাই’ (Mithai)। আর এই ধারাবাহিকে মূল চরিত্র মিঠাই অর্থাৎ অভিনেত্রী সৌমিতৃষা কুন্ডু (Soumitrisha Kundu) বর্তমানে তাঁর অভিনয় দক্ষতা দিয়ে দর্শকদের ঘরের মেয়ে হয়ে উঠেছেন। ইতিমধ্যেই তাঁর ফ্যান ফলোয়ার্স আকাশ ছোঁয়া। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই ধারাবাহিকের সুবাদে এই মিষ্টি অভিনেত্রী সকলের মন জয় করে নিয়েছেন। অভিনয় জগতের পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতে ও সমানভাবে সক্রিয় তিনি। তাঁর অগুণতি অনুরাগীদের জন্য তিনি মাঝেমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন রকমের ছবি এবং রিল ভিডিও শেয়ার করেন। শুটিং ফ্লোর থেকেও সহকর্মীদের সাথে তাঁকে রিল ভিডিও তৈরি করতে মাঝেমধ্যে দেখা যায়। অত্যন্ত চনমনে এবং হাসিখুশি এই অভিনেত্রীর আবার ও একটি ভিডিও সম্প্রতি নেটদুনিয়া উত্তাল করে তুলেছে।

অভিনয়ের আগে প্রথম জীবনে মডেলিং দিয়ে কেরিয়ার শুরু করেছিলেন সৌমিতৃষা কুন্ডু। পরবর্তীকালে সান বাংলার পর্দায় ‘কনে বৌ’ ধারাবাহিকে মুখ্য চরিত্রে দেখা যায় তাঁকে। আর এই ধারাবাহিক শেষ হতে না হতেই জি বাংলার পর্দায় মিঠাই ধারাবাহিকে নায়িকা চরিত্রে দেখা যায় তাঁকে। তাঁর অভিনয় থেকে পার্সোনালিটি সবকিছুতেই রীতিমতো মুগ্ধ অনুরাগীরা। অভিনেত্রীর ব্যক্তিগত জীবন থেকে শুরু করে জীবনের বিশেষ মানুষ খুঁটিনাটি সমস্ত বিষয় নিয়ে জানার জন্য দর্শকরা মুখিয়ে থাকেন। এককথায় বলতে গেলে বর্তমানে তিনি টেলিভিশনের অন্যতম চার্মিং অভিনেত্রী।

সম্প্রতি অভিনেত্রীর ভাইরাল (Viral) হওয়া ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে মিঠাই লুকে একটি স্টেজ শোতে উপস্থিত হয়ে সে প্রথমেই জানায় সে জনাইয়ের মেয়ে এবং মিষ্টি বানায়। কিন্তু তার বর উচ্ছেবাবু একদম মিষ্টি পছন্দ করেন না। মিঠাই আরো বলে যে সে বকবক করে আর উচ্ছেবাবু একদমই কথা বলা পছন্দ করেন না। মিঠাই নাকি কোনো জিনিস হাত থেকে ফেলে দিলে উচ্ছেবাবু চেঁচিয়ে তাকে ‘ডিসগাস্টিং’, ‘ননসেন্স’, ‘রিডিকিউলাস’, ‘ইস্টুপিড’ বলে। এমনভাবে উচ্ছেবাবুকে নিয়ে ডায়লগ বলতে গিয়ে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়লেন অভিনেত্রী। এরপর অভিনেত্রী চোখের জল মুছে ‘ইয়ে মেরা দিল’ গানটি গাইতে শুরু করেছিলেন অভিনেত্রী। এমনকি তিনি এই গানের সাথে কোমর দুলিয়ে স্টেজ ও মাতিয়েছিলেন।

‘আগমনী ষ্টুডিও’ নামক একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে ভিডিওটি শেয়ার করা হয়েছিল। ভিডিওটি ইতিমধ্যে ১৩ হাজার ভিউ পেয়ে গেছে। এছাড়া অনেকে লাইক করেছেন ভিডিওটিতে। অজস্র নেটিজেন ভিডিওর কমেন্ট বক্সে ইতিবাচক মন্তব্য করছেন। এককথায় বলতে গেলে সকলের আদরের সৌমিতৃষার এই মনখোলা গানে খুবই খুশি হয়েছেন দর্শকেরা।

Categories
বিনোদন ভাইরাল ভিডিও ভিডিও

সম্পূর্ণ খালি গলায় দুর্দান্ত গান গেয়ে তাক লাগালেন মিঠাইয়ের উচ্ছেবাবু, প্রশংসার ঝড় নেটদুনিয়ায়

জী বাংলা চ্যানেলের জনপ্রিয় ধারাবাহিক মিঠাই এখন দর্শকদের খুব প্রিয় হয়ে উঠেছে। মিঠাইকে ধারাবাহিকের পর্দার বাইরেও বাস্তবেও দর্শকরা বেশ পছন্দ করেন। মিঠাইয়ের সকল অভিনেতা অভিনেত্রীরা বাস্তবেও বেশ মিশুকে। প্রায়ই মিঠাইয়ের ষ্টুডিওয় প্রিয় অভিনেতা অভিনেত্রীদের সাথে দেখা করতে ছুঁটে যান ভক্তরা।

মিঠাই ধারাবাহিকে মুখ্য চরিত্রে অভিনয়কারী অভিনেতা আদৃত রায় ওরফে সিদ্ধার্থ। সে একজন ভালো অভিনেতা সাথে আর খুব ভালো গায়কও। এর আগে বেশ কয়েকবার আদৃতের গান শুনেছেন দর্শকের হয়েছিল। আর তাই তার অনুরাগীরা জানেন যে অভিনেতা গানটা বেশ ভালোই গান। আদৃত নিজেই জানিয়েছেন যে তিনি একটি ব্যান্ডের সাথে যুক্ত।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি জানিয়েছিলেন তাঁদের ব্যান্ড নজরুল তীর্থে একটি প্রোগ্রাম করতে চলেছে। যেখানে তাঁরা প্রয়াত গায়ক কেকের গান গেয়ে তাঁকে শ্রদ্ধা জানাবেন। আর সেই প্রোগ্রামের রিহার্সালের একটি ছোট্ট ভিডিও অভিনেতা সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের ফেসবুক একাউন্টে পোস্ট করেছেন। অভিনেতার গলায় এমন চমৎকার গান শুনে নেটিজেনরা মুগ্ধ হয়ে গিয়েছেন। অনেকেই অভিনেতার এমন সুন্দর গানের গলার উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেছেন। আর সোশ্যাল মিডিয়ায় মুহূর্তেই সেই ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।

বেশ কিছুদিন যাবৎ মিঠাই খ্যাত অভিনেতা আদৃত, সৌমিতৃষা ও কৌশাম্বিকে নিয়ে সম্পর্কের টানাপোড়েনের গুজন শোনা যাচ্ছিল। এই গুঞ্জনে মদত দিয়েছিলো অভিনেতা আদৃতের জন্মদিনে অভিনেত্রী সৌমিতৃষা কুন্ডুর দূরত্ব বজায় রাখা। তবে অনেক কিছুর পর এখন পরিস্থিতি বেশ স্বাভাবিক। গুঞ্জন এখনো পুরোপুরি থামেনি। তাই অভিনেতার এই গান শুনে অনেকেই ইঙ্গিতপূর্ণ ভাবে জানতে চেয়েছেন যে অভিনেতা কি এই গান কৌশাম্বি ও সৌমিতৃষাকে উদ্দেশ্য করে গাইছেন!

Categories
বিনোদন ভাইরাল ভিডিও ভিডিও

সিদ্ধার্থ এখন অতীত, ভাসুর সোমের সঙ্গে মডার্ন ড্রেসে উদ্দাম নাচ মিঠাইয়ের, ভাইরাল ভিডিও

মিঠাই (Mithai) জি বাংলার পর্দায় একটি অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক। ধারাবাহিকের মূল চরিত্র মিঠাইকে নিজের স্ত্রী হিসাবে না মেনে নিয়েও তার প্রতি সিদ্ধার্থের ভালোবাসা, বা সিদ্ধার্থকে সবসময় মিঠাই যেভাবে চোখে চোখে রাখে তা দর্শকদের মন জয় করে নেয়। সৌমিতৃষা কুন্ডু (Soumitrisha Kundu) ওরফে মিঠাই সোশ্যাল মিডিয়ায় খুবই অ্যাকটিভ। নানারকমের ফটোশুটের ভিডিও পোস্ট করে তিনি দর্শকদের মাতিয়ে রাখেন। আবার কখনো কখনো তিনি কো-স্টারদের সঙ্গে শুটিংয়ের ফাঁকেই নানা রকমের রিল ভিডিও তৈরি করেন। সম্প্রতি অনস্ক্রিন ভাসুর সোম ওরফে ধ্রুব সরকারের (Dhrubo Sarkar) সাথে ভিডিওতে মাতলেন মিঠাই। ভিডিওটি প্রকাশ্যে আসতেই ঝড়ের গতিতে ভাইরাল (Viral) হয়েছে নেটদুনিয়ায়।

অনস্ক্রিনে ভাসুর বৌদির সাপে নেউলের সম্পর্ক হলেও অফ স্ক্রিনে তারা একে অপরের ভালো বন্ধু। সম্প্রতি সামাজিক মাধ্যমে প্রকাশ করা মিঠাই ও সোমের ট্রেন্ডিং গানের এই ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়েছে নেটদুনিয়ায়। সৌমিতৃষার অফিসিয়াল ইনস্টাগ্রাম পেজ থেকে শেয়ার করা হয়েছে এই ভিডিওটি। ভাইরাল হওয়া এই ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে মিঠাই ও সোম দুজনেই নীল রঙের জিন্স এবং কালো রংয়ের শার্ট পরেছেন। অভিনেত্রী ভিডিওটি শেয়ার করে ক্যাপশনে লিখেছেন ‘আফটার এ লং টাইম উইথ ডান্স পার্টনার’। উল্লেখ্য ভিডিওটিতে তাঁদের দুজনেরই ডান্সস্টেপ ছিল অসাধারণ।

ভিডিওটি (Dance Video) ইতিমধ্যেই অনেকে লাইক, কমেন্ট ও শেয়ার করে ফেলেছেন। অনেকেই লিখেছেন ‘আফটার এ লং টাইম মিঠাই উইথ হার বড়দা’, ‘কত্ত দিন পর !!! মনটা জুড়িয়ে গেলো’ এরকম ধরনের মন্তব্য। আবার অনেক নেটিজেনই তাঁর কমেন্ট বক্সে অজস্র ভালোবাসা এবং আগুনের ইমোজি ও জুড়ে দিয়েছেন।