Categories
ভিডিও লাইফ স্টাইল

এইভাবে কাশ্মীরি চিকেন বানালে স্বাদ হবে দুর্দান্ত, হাত চাটবে আট থেকে আশি, শিখে নিন রেসিপি

মৎস্যপ্রিয় বাঙালির পছন্দের খাদ্যতালিকা মাংস ছাড়া একেবারে অসম্পূর্ণ। দুপুরবেলা গরম ভাতের সাথে কিংবা যেকোন অনুষ্ঠান চিকেন কিংবা মাটনের যেকোন লোভনীয় পদ থাকবেই। মাংসের ঝোল থেকে শুরু করে কাবাব কিংবা স্ন্যাকসের জন্য সুস্বাদু পকোড়া সবেতেই মাংসের জয়জয়কার। বিভিন্ন উপাদান দিয়ে নানা ভাবে মাংস রান্না করা যায়। একেবারে সাধারণ ঘরোয়া পদ্ধতিতে কিংবা রেস্টুরেন্ট স্টাইলে যেভাবেই হোক বাঙালি মাংসের যেকোন পদেই তৃপ্তি খুঁজে পায়।

উপকরণ :
১. চিকেন
২. নুন
৩. হলুদ গুঁড়ো
৪. লাল লংকার গুঁড়ো
৫. সর্ষের তেল
৬. পেয়াঁজ
৭. আদা বাটা
৮. রসুন বাটা
৯. টমেটো বাটা
১০. কাশ্মীরি লাল লংকার গুঁড়ো
১১. ধনে গুঁড়ো
১২. জিরে গুঁড়ো
১৩. গোলমরিচ গুঁড়ো
১৪. গরম মশলা
১৫. টক দই
১৬. দুধ
১৭. চিনি
১৮. ধনে পাতা

প্রণালী :
১ কেজি চিকেনকে ভালো করে ধুয়ে ১/২ চামচ হলুদে গুঁড়ো , লাল লংকার গুঁড়ো এবং স্বাদমতো লবণ দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। ৫ থেকে ১০ মিনিট এইভাবে মাংসকে ম্যারিনেট করে রাখতে হবে।

এর পরে কড়াই গরম করে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে পরিমাণের থেকে একটু বেশি সর্ষের তেল। তেল ভাল করে গরম হয়ে গেলে এর মধ্যে ম্যারিনেট করে রাখা মাংসের টুকরোগুলোকে দিয়ে ৩ থেকে ৪ মিনিট উল্টেপাল্টে হালকা করে ভেজে নিতে হবে। চিকেনগুলো হালকা করে ভাজা হয়ে গেলে কড়াই থেকে তুলে নিয়ে আলাদা পাত্রে রেখে দিতে হবে।

মাংস ভাজার তেলের মধ্যেই দিয়ে দিতে হবে ৩টি বড় আকারের পেয়াঁজ কুচি। পেয়াঁজকে ৫ থেকে ৬ মিনিট ভালো করে ভেজে নেওয়ার পরে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ২ টেবিল চামচ আদা রসুন বাটা। গ্যাসের আঁচ কমিয়ে দিয়ে ২ থেকে ৩ মিনিট ভাল করে কষিয়ে নিতে হবে। আদা রসুন বাটা থেকে কাঁচা গন্ধ চলে গেলে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে বড় আকারের ২টো টমেটো বাটা।

টমেটো বাটা ভালো করে কষে শুকিয়ে এলে দিতে হবে ১ টেবিল চামচ কাশ্মীরি লংকার গুঁড়ো, ১/২ টেবিল চামচ লাল লংকার গুঁড়ো , ১ এবং ১/২ টেবিল চামচ ধনে গুঁড়ো এবং ১ চামচ জিরে গুঁড়ো,সামান্য গোলমরিচ গুঁড়ো এবং অল্প পরিমানে গরম মশলা। পরিমানমত লবণ দিয়ে সমস্ত মশলাগুলিকে ভালো করে কষিয়ে নিতে হবে। মশলা কষানোর সময় গরম জল ব্যবহার করলে রান্নার স্বাদ ভালো হয়। তাই মশলা কষে শুকিয়ে এলে যোগ করতে হবে অল্প পরিমাণে গরম জল।

এইভাবে ভালো করে কষিয়ে নেওয়ার পরে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ৩ টেবিল চামচ ফেটানো টক দই। গ্যাসের আঁচ আবার কমিয়ে দিয়ে গ্রেভির সাথে ফেটানো টক দই ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। মশলা ভালো করে কষে গিয়ে তেল বেরোতে শুরু করলে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ১ গ্লাস দুধ।

দুধ ঘন হয়ে না আসা পর্যন্ত ভালো করে নাড়াচাড়া করে নিতে হবে। দুধ যোগ করার আগে ভালো করে গরম করে নিয়ে ঠাণ্ডা করে নিতে হবে। ৫ থেকে ৬ মিনিট রান্না করার পরে ভাজা চিকেনগুলো দিয়ে দিতে হবে। মশলার সাথে ৫ মিনিট ধরে মাঝারি আঁচে ভাল করে চিকেন কষিয়ে নিতে হবে। চিকেন কষানোর সময় বারবার ভালো করে নাড়াচাড়া করে নিতে হবে যাতে কড়াইয়ের নিচে ধরে না যায়।

চিকেন ভাল করে কষানো হয়ে এলে দিয়ে দিতে হবে গরম জল। ১০ মিনিট মত কড়াইয়ের ঢাকা বন্ধ করে দিতে হবে যতক্ষণ না চিকেন ভাল করে সেদ্ধ হয়ে যায়। এর মাঝে ঢাকা খুলে প্রয়োজন হলে লবণ দিতে হবে। এই পর্যায়ে যোগ করতে হবে অল্প পরিমাণে চিনি। দুধ এবং দইয়ের সাথে এই রান্নায় চিনি যোগ করলে স্বাদ আরও ভাল হবে। ৫ থেকে ৬ মিনিট এইভাবে ঢাকা দিয়ে রান্না করার পরে দিয়ে দিতে হবে ধনে পাতা কুচি।

এর কিছুক্ষণ পরে গ্যাস বন্ধ করে দিতে হবে। সাধারণ ঘরোয়া মশলা দিয়েই মাংসের এই অসাধরণ পদটি পরিবেশনের জন্য একদম তৈরী।

Categories
অফবিট ভাইরাল ভিডিও ভিডিও

খোলা আকাশের নীচে দুর্দান্ত অঙ্গভঙ্গিতে অসাধারণ নাচ সুন্দরী যুবতীর, রইল ভিডিও

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে জনপ্রিয় হিন্দি গান ‘ছাম্মা ছাম্মা’ (Chamma Chamma) তে উমা মীনাক্ষী (Uma Minakshi) নামে একজন বিমানসেবিকার দুর্দান্ত নাচের ভিডিও। নেটিজেনরা বেশ মুগ্ধ হয়েছেন তাঁর নাচ দেখে।

১৯৯৮ সালে মুক্তি পেয়েছিল রাজকুমার সন্তোষী (Rajkumar Santoshi) পরিচালিত ‘চায়না গেট’ (China Gate) সিনেমাটি। এই সিনেমারই বিখ্যাত গান এটি। সমগ্র গানটি দৃশ্যায়িত হয়েছিল অভিনেত্রী উর্মিলা মাতণ্ডকর (Urmila Matondkar) উপরে। সিনেমার বাকি কলাকুশলীদের এই গানে দেখতে পাওয়া গেলেও মূল আকর্ষণ ছিলেন উর্মিলা। তাঁর নৃত্য দক্ষতায় গানটি সেইসময় খুব জনপ্রিয়তা পেয়েছিল। সেই বিখ্যাত গানেই পা মেলালেন এই বিমানসেবিকা।

কথায় বলে ‘যে রাঁধে সে চুলও বাঁধে’। সেই কথাই প্রমান করে দিল এই বিমান সেবিকাটি। নিজের পেশাগত গন্ডির বাইরে বেরিয়ে একেবারে অন্য ভূমিকায় ধরা দিয়েছেন তিনি । ইতিমধ্যে তাঁর নাচের কারণে সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ ভাইরালও হয়েছেন । ভাইরাল ভিডিওটিতে বিমান সেবিকার পরনে ছিল বটল গ্রিন রঙের শর্ট স্কার্ট এবং কালো রঙের টি শার্ট। বর্ষার মরসুমে বাড়ির ছাদের উপরে এই গানে দুর্দান্ত নৃত্য পরিবেশন করেছেন তিনি। তবে এই প্রথমবার নয়। এর আগেও ইনস্টাগ্রামে বিভিন্ন নাচের রিলস আপলোড করে নেটিজেনদের মন জয় করে নিয়েছেন। তাঁর নাচের প্রতিটা স্টেপ এবং প্রকৃতির অপূর্ব শোভার মেলবন্ধনে সমগ্র ভিডিওটি বেশ মনোগ্রাহী হয়ে উঠেছে। কিছুদিন আগে ভিডিওটি আপলোড করা হলেও এর লাইকস এবং কমেন্টস ইতিমধ্যে বেশ ঈর্ষণীয় জায়গায় পৌঁছেছে। ৪৪ হাজারের উপরে মানুষ ভিডিওটিকে পছন্দ করেছেন এবং হাজারের উপরে মানুষ কমেন্টে উমার নাচের প্রশংসা করেছেন।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by UMA MEENAKSHI (@yamtha.uma)

সোশ্যাল মিডিয়ার কারণে বর্তমানে ভিন্ন পেশার অনেক মানুষের একেবারে অন্য রূপও ধরা পরে সবার সামনে। চিরাচরিত রূপের থেকে অন্য রূপে তাঁদের দেখতে পেয়ে সবাই বেশ আনন্দিত হন। এইভাবেই ইন্টারনেট এবং মুঠোফোনের যুগলবন্দিতে প্রতিদিনই সামাজিক মাধ্যম আরো বেশি করে সবার কাছে অনায়াসে পৌঁছে যাচ্ছে।

Categories
অফবিট ভাইরাল ভিডিও ভিডিও

মাত্র ১৫ মাস বয়সে তবলা বাজিয়ে তাক লাগাল খুদে, ঝড়ের গতিতে ভাইরাল ভিডিও

সোশ্যাল মিডিয়ায় সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে ১৫ মাস বয়সের এক খুদে তবলচির অসাধারণ উপস্থাপনা। নেটিজেনরা এই খুদে শিল্পীটির প্রতিভা দেখে মুগ্ধ।

ভাইরাল ভিডিওটি আপলোড করা হয়েছিল আসিফ ফিরদৌসী (Asif Firdousi) নামে এক ব্যক্তির ইউটিউব চ্যানেল থেকে। ভিডিওটিতে খুদে শিল্পীর পরনে ছিল সবুজ রঙের গেঞ্জি এবং নীল রঙের হাফ প্যান্ট। মেঝেতে বসে আপন মনে তবলা বাজাচ্ছে সে। এই বয়সে পরিণত মানুষের মতো তবলা বাজানো খুদেটির পক্ষে সম্ভব না হলেও চেষ্টায় কোনো খামতি রাখেনি। চিরাচরিত তবলার বোল শুনতে পাওয়া না গেলেও নেটিজেনরা বেশ প্রশংসা করেছেন খুদেটির অসাধারণ এই প্রতিভাকে। ভিডিওটিতে জনৈক কোন ব্যক্তির স্বর শুনতে পাওয়া গিয়েছে যিনি খুদেটিকে তবলার বোল ‘না ধিন ধিন না’ শেখানোর চেষ্টা করছেন। তবলায় মনের সুখে চাঁটি মারার সঙ্গে বোলটিকে নিজের মতো করে বলারও চেষ্টা করছে সে। আধো আধো বুলিতে তবলার বহু প্রচলিত বোলকে নতুনভাবে শুনতে পেয়েছে দর্শক। তবলা বাজাতে ভালোবাসলেও টানা বাজানো সম্ভব নয় বলে মাঝে মধ্যে খুদেটিকে বিশ্রাম নিতেও দেখতে পাওয়া গিয়েছিল। সব মিলিয়ে বেশ মনোগ্রাহী ভিডিও ছিল এটি যা নিমেষেই সবার মন জয় করে নিয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় সব রকমের ভিডিও ভাইরাল হয়। এর মধ্যে শিশুদের ভিডিও এক অনাবিল আনন্দ দেয় সবাইকে । এই ভিডিওটিও সেইরকমই আনন্দদায়ক একটি ভিডিও। ছোটবেলা থেকে এইসব প্রতিভাবান শিশুদের উৎসাহ দিলে ভবিষ্যতে তাদের প্রতিভার বিকাশ আরও ভালোভাবে হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে । তবে এই এই খুদেটির প্রচেষ্টা দেখে বোঝা যাচ্ছে আগে গিয়ে তার মধ্যে অনেক বড় তবলাবাদক হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতেই বর্তমানে এইরকম প্রতিভাবান শিল্পীদের খোঁজ পাওয়া যায় আর এদের ছোট্ট প্রয়াস অতি সহজেই সবার মন ছুঁয়ে যায়।

Categories
বিনোদন ভাইরাল ভিডিও ভিডিও

অসাধারণ সুরে গান গেয়ে সকলকে মুগ্ধ করলেন অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়, ভাইরাল ভিডিও

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়ের (Srabanti Chatterjee) লাইভ পারফরম্যান্স। স্টেজের উপরে অভিনেত্রীকে সামনে থেকে দেখতে পেয়ে স্বভাবতই খুব উচ্ছসিত ওই শোয়ে উপস্থিত দর্শকরা।

টলিউড ইন্ডাস্ট্রির একজন খ্যাতনামা অভিনেত্রী হলেন শ্রাবন্তী চ্যাটার্জি। ১৯৯৭ সালে ‘মায়ার বাঁধন’(Mayar Badhon) সিনেমার মধ্যে দিয়ে অভিনয়ে হাতেখড়ি হয়েছিল সুন্দরী এই নায়িকার। এর পরে বিভিন্ন নায়কের সাথে জুটি বেঁধে বাংলা সিনেমাকে অনেক হিট সিনেমা উপহার দিয়েছেন শ্রাবন্তী। তাঁর অভিনীত সিনেমাগুলির মধ্যে অন্যতম হল ‘চ্যাম্পিয়ন’ (Champion) , ‘দুজনে’ (Dujone) , ‘ওয়ান্টেড’ (Wanted) , ‘অমানুষ’ (Amanush), ‘জোশ’ (Josh), ‘ফাইটার’ (Fighter), ‘গয়নার বাক্স’ (Goynar Baksho) প্রভৃতি। সিনেমা ছাড়াও ছোট পর্দাতেও বর্তমানে বেশ সক্রিয় অভিনেত্রী।

জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো ‘ড্যান্স বাংলা ড্যান্স’ (Dance Bangla Dance) -এর দুটি সিজনে বিচারকের ভূমিকার দেখতে পাওয়া গিয়েছে তাঁকে। পেশাগত জীবনে সফল হওয়ার পাশাপাশি নিজের ব্যক্তিগত জীবনের কারণে বহুবার বিতর্কের শিকার হয়েছেন। পরিচালক রাজীব কুমার বিশ্বাসের (Rajiv Kumar Biswas) সাথে বিবাহ বিচ্ছেদের পরে অনেক সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন অভিনেত্রী। ২০১৬ সালে মডেল কৃষ্ণান ব্রজর (Krishnan Vraj) সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার পরের বছরেই বিচ্ছেদের পথে হেঁটেছিলেন শ্রাবন্তী। এমনকি পাইলট রোশন সিংকে (Roshan Singh) ২০১৯ সালে বিয়ের করার পরের বছরই আবার বিচ্ছেদের সুর শোনা গিয়েছিল। কিছুদিন আগে অভিনেত্রীর একটি পোস্টে নতুন সম্পর্কের ইঙ্গিত পেয়েছেন নেটিজেনরা।

‘আগমনী ষ্টুডিও’ (Agamani Studio) নামে একটি ফেইসবুক পেজ থেকে কিছুদিন আগে ভাইরাল হয়েছে শ্রাবন্তীর একটি ভিডিও। কালো রঙের জমকালো পোষাক পরে স্টেজে পারফর্ম করছিলেন তিনি। প্রিয় অভিনেত্রীকে দেখতে অনেক অনুরাগী ভিড় জমেছিল ওই অনুষ্ঠানে। সবাই বেশ আপ্লুত নিজের পছন্দের অভিনেত্রীকে কাছ থেকে দেখে। ভিডিটিকে ইতিমধ্যে ২৭ হাজারের বেশি দর্শক পছন্দ করেছেন আর ভিউস সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৭ লক্ষের গন্ডি। কমেন্টসে অনেকেই অভিনেত্রীর সাজের প্রশংসা করেছেন। সামনে থেকে দেখার সুযোগ না পেলেও ভিডিওর মাধ্যমে প্রিয় অভিনেত্রীকে দেখতে পেয়ে তাঁরা যে খুব খুশি তা প্রকাশ পেয়েছে অসংখ্য কমেন্টসে। অভিনয়ের পাশাপাশি নাচেও সমানভাবে দক্ষ শ্রাবন্তী। তাই এই স্টেজে নিজের সিনেমার বেশ কয়েকটি গানে পা মেলাতেও দেখা গিয়েছে তাঁকে। তবে তাঁর গলায় গান শুনে বেশি খুশি হয়েছেন দর্শকরা। সব মিলিয়ে স্টেজ একেবারে মাতিয়ে দিয়েছেন নিজের উপস্থিতি দিয়ে।

Categories
অফবিট ভাইরাল ভিডিও ভিডিও

প্রকৃতির মাঝে গল্পে মত্ত বাদাম কাকু ও মাছ কাকু, রইল ভিডিও

সম্প্রতি ‘বাদাম কাকু’ ভুবন বাদ্যকারের (Bhuban Badyakar) সাথে এক ভিডিওতে দেখতে পাওয়া গিয়েছে ‘মাছ কাকু’ বলে পরিচিত কুশল বাদ্যকারকে (Kushal Badyakar)। বর্তমান যুগের এই দুই সেনসেশনকে একসাথে দেখতে পেয়ে স্বভাবতই বেশ উচ্ছসিত নেটিজেনরা।

জীবিকা নির্বাহের জন্য সাইকেলে করে বাদাম বিক্রি করতেন বীরভূমের দুবরাজপুরের বাসিন্দা ভুবন বাদ্যকার। তাঁর গাওয়া ‘কাঁচা বাদাম’ (Kacha Badam) গানটি জনপ্রিয় হয়ে যাওয়ার পরে রাতারাতি বিখ্যাত হয়ে গিয়েছিলেন তিনি। তাঁর এই গানটির জনপ্রিয়তা একসময় দেশ কালের গণ্ডি ছাড়িয়ে বিদেশেও ছড়িয়ে পড়েছিল। কিছুদিন আগে নিজের একক অ্যালবামও প্রকাশিত হয়েছিল তাঁর। অন্যদিকে পশ্চিম বর্ধমানের মাছ ব্যবসায়ীর ক্ষেত্রেও একইরকম ঘটনা ঘটেছে। মাছ বিক্রি করার সময় কুশলবাবু ক্রেতাদের উদ্দেশ্যে যে গান করতেন একসময় সেই গানই তাঁকে প্রচারের আলোয় নিয়ে এসেছিল। কিছুদিন আগে কুশলবাবুও নিজের একটি গানের অ্যালবাম প্রকাশ করার সুযোগ পেয়েছেন।

আরবিএইচ ক্রিয়েশন (RBH CREATION ) নামে ইউটিউব চ্যানেল থেকে যে ভিডিওটি বর্তমানে বেশ ভাইরাল হয়েছে তাতে এই দুই শিল্পীকে একসাথে নিজেরদের মতো করে সময় কাটাতে দেখা গিয়েছে। এমনকি জমাটি আড্ডার সাথে তাঁরা একসাথে গান বাজনাও করেছেন । গানের কারণেই তাঁদের খ্যাতি আর গানের জন্যই তাঁদের কাছাকাছি আসা বলে জানিয়েছেন এই দুই শিল্পী। বর্তমানে প্রজন্মের এই গায়কদের একসাথে গান গাইতে দেখে অনুরাগীরা যে বেশ আনন্দিত সেটা ভিডিওটির লাইকস এবং কমেন্টস থেকেই বোঝা গিয়েছে। গানের পাশাপাশি বর্তমানে ভুবনবাবু যাত্রা পালার সাথেও জড়িত। ‘খোকাবাবুর খেলাঘর’ নামে যাত্রাপালাতে তাঁকে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যাবে। যাত্রার কারণেই দেউল পার্কে এসেছিলেন ভুবনবাবু। সেইখানেই তাঁর সাথে দেখা করতে হাজির হয়েছিলেন কুশলবাবু।

সোশ্যাল মিডিয়ার কারণে অনেক অনামী কিন্তু প্রতিভাবান শিল্পীরা পরিচিতি পায়। তাই প্রতিভা বিকাশের মঞ্চ হিসাবে এইসব শিল্পীদের কাছে সামাজিক মাধ্যমই সবচেয়ে বড়ো ভরসার জায়গা হয়ে উঠেছে। ইন্টারনেট এবং মুঠোফোনের যুগলবন্দিতে এইভাবেই আগামী দিনেও খ্যাতি পাবে বাদাম কাকু কিংবা মাছ কাকু অথবা ভিন্ন পেশার কোন মানুষ।

Categories
অফবিট ভাইরাল ভিডিও ভিডিও

নিজের জীবন বাজি রেখে সন্তানদের বাঁচাতে কিং কোবরার সঙ্গে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই মা মুরগির, ভাইরাল ভিডিও

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে মুরগির সাথে এক কেউটে সাপের লড়াইয়ের ভিডিও। সন্তানদের বাঁচাতে অসম এই লড়াইয়ে মুরগির সাহসের প্রশংসা করেছেন নেটিজেনরা।

পৃথিবীতে সন্তানকে সবচেয়ে বেশি ভালোবাসেন মা। সন্তানদের জন্য সবরকমের প্রতিকূল পরিস্থিতির মোকাবিলা করতেও পিছপা হন না তাঁরা। শুধুমাত্র মানুষের ক্ষেত্রেই নয় পশু পাখি সবার ক্ষেত্রেই এটি দেখতে পাওয়া যায়। সন্তানকে ভালো এবং নিরাপদে রাখার সবরকমের প্রচেষ্টা করে থাকেন মায়েরা।

‘ওয়াইল্ড কোবরা’ (Wild Cobra) নামে একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে ভাইরাল হয়েছিল ভিডিওটি। ভিডিওটিতে দেখতে পাওয়া গিয়েছে একটি মুরগির খাঁচার মধ্যে ঢুকে গিয়েছে একটি বিশালাকায় কেউটে সাপ। দশটি ছানা নিয়ে সেখানে সংসার পেতেছিল মা মুরগি। মুরগির ছানাগুলিকে শিকার করার জন্যই যে সাপের আগমন সেটা বুঝতে পেরেই ঝাঁপিয়ে পড়ে মা মুরগি। কেউটে সাপ পৃথিবীর অন্যতম বিষাক্ত সাপ, যার এক ছোবলেই মৃত্যু অনিবার্য। কিন্তু সন্তানদের রক্ষা করার জন্য নিজের আসন্ন মৃত্যুকে সামনে দেখতে পেয়েও যথাসাধ্য লড়াই করেছে মুরগিটি। নিজের ঠোঁট দিয়ে ক্রমাগত আঘাত করে গিয়েছে সাপটিকে। সাপটিও তার ফণা দিয়ে মুরগিটিকে আঘাত করেছে। তবে সাপের বারংবার ছোবল খাওয়া সত্ত্বেও নিজের সন্তানদের বাঁচাতে লড়াই চালিয়ে গিয়েছে মুরগিটি। তবে শেষ পর্যন্ত এই লড়াইয়ে মাতৃত্বের জয় হয়েছে কিনা সেটা জানা যায়নি। ভিডিওটি আপলোডের কিছুক্ষণের মধ্যে ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল। অসংখ্য লাইকস এবং কমেন্টস এসেছিল ভিডিওটিতে। প্রত্যেকেই মা মুরগির প্রশংসা করেছেন। মায়েরা সন্তানদের জন্য লড়াই করতে যে ভয় পায়না সেটা এই মুরগিটি সবাইকে দেখিয়ে দিয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে বর্তমানে বিভিন্ন ধরণের ভিডিও দেখতে পাওয়া যায়। এর মধ্যে কিছু হাড়হিম করা ভিডিও থাকে। এই ভিডিওটি দেখে মানুষের গায়ে কাঁটা দিলেও মা মুরগির এই লড়াই দেখে অনেকেই বেশ অনুপ্রাণিত হয়েছেন। মায়ের ভালোবাসা এবং স্নেহ মানুষ ভাষায় প্রকাশ করতে পারে। এমনকি প্রতিবাদ করলেও সবাই বুঝতে পারে। কিন্তু যারা পারে না তাদের প্রকাশের ভিন্ন ভাষা দেখতে পাওয়া গেল এই ভিডিওর মাধ্যমে।

Categories
বিনোদন ভিডিও

‘এই লোকটা আমার টাকা-পয়সা সবকিছুতে নজর দেয়’, প্রকাশ্য মঞ্চে কপিল শর্মাকে কটাক্ষ অক্ষয় কুমারের

সম্প্রতি নিজের ব্যথর্তার পেছনে কপিল শর্মা (Kapil Sharma)-কে দায়ী করলেন অভিনেতা অক্ষয় কুমার (Akshay Kumar)। এই নিয়ে বেশ শোরগোল পড়ে গিয়েছে নেটদুনিয়ায়।

১৯৯১ সালে ‘সওগন্ধ্’ (Saugandh) সিনেমা দিয়ে বলিউডে পা রেখেছিলেন খিলাড়ি অক্ষয় কুমার। এর পরে ‘ধড়কান’ (Dhadkan) , ‘আন্দাজ’ (Andaaz) , ‘হেরা ফেরি’ (Hera Pheri) , ‘নমস্তে লন্ডন’ (Namastey London) ‘ভুল ভুলাইয়া’র (Bhool Bhulaiyaa) মতো সুপারহিট সিনেমা উপহার দিয়েছেন দর্শকদের। ২০০১ সালে ‘আজনাবি’ (Ajnabee) এবং ২০০৫ সালে ‘গরম মশলা’ (Garam Masala) সিনেমার জন্য পেয়েছিলেন ফ্লিমফেয়ার অ্যাওয়ার্ডও (Filmfare Award)। ২০১৬ সালে থ্রিলার সিনেমা ‘রুস্তমের’ (Rustom) জন্য ন্যাশনাল পুরস্কার জিতেছিলেন খিলাড়ি। তাঁর অভিনীত ‘টয়লেট :এক প্রেম কথা’ (Toilet: Ek Prem Katha), ‘প্যাড ম্যান’ (Pad Man) প্রভৃতি সামাজিক বার্তাবহ সিনেমাগুলিও বেশ প্রসংশিত হয়েছে। এছাড়া মার্শাল আর্টে দক্ষ এই অভিনেতাকে বেশ কয়েকটি রিয়েলিটি শোতেও গিয়েছিল। এর মধ্যে অন্যতম ‘ডেয়ার টু ড্যান্স’( Dare 2 Dance)। ‘ওয়ার্ল্ড কাবাডি’ (World Kabaddi League) লিগেও অংশ নিয়েছিলেন তিনি।

প্রতিবছরই বেশ কয়েকটি সিনেমা হিট হয় তাঁর। কিন্তু এই বছরটা এখনও পর্যন্ত তেমন ভালো যাচ্ছে না অক্ষয়ের। বেশ কয়েকটি সিনেমা বক্স অফিসে সাড়া ফেলতে ব্যর্থ হয়েছে। ‘অতরঙ্গি রে’ ( Atrangi Re), ‘বচ্চন পাণ্ডে’( Bachchan Pandey), ‘সম্রাট পৃথ্বীরাজ’ (‘Samrat Prithviraj)থেকে শুরু করে সদ‍্য মুক্তি পাওয়া ‘রক্ষা বন্ধন’ (Rakshabandhan) সব কটাই সাফল্যের মুখ দেখতে পারেনি। কিছুদিন আগে কপিল শর্মা সঞ্চালিত কমেডি শোতে নিজের ছবি ‘কাঠপুতলি’র (Kathputli) প্রচারে হাজির হয়েছিলেন অক্ষয়। সেইখানেই কপিলের সাথে কথোপকথনে জানিয়েছেন কপিলের নজর লেগেই তাঁর একটাও ছবি এখনও হিট করেনি। তাঁর সমস্ত সম্পত্তির উপরেও লোভ রয়েছে কপিলের। নিছকই মজার ছলেই এই সব কথা বলেছেন বলে পরে জানিয়েছেন অভিনেতা। পরপর ছবির ব্যর্থতার কারণে হিসেবে নিজেকেই দায়ী করেছেন তিনি। নতুন করে আবার দর্শকদের মনে জায়গা করে নিতে হলে নতুনভাবে ভাবনা চিন্তা শুরু করতে হবে। এইকারণে নিজেকেও বদলাতে হবে বলে ওই শোতে জানিয়েছেন।

সাফল্য এবং ব্যর্থতা একই কয়েনের দুটি দিক। বিনোদন জগতের সব কলাকুশলীরাই এই দুটির সাথে ভালোভাবে পরিচিত। তবে অক্ষয় যেভাবে নিজের ইমেজ তৈরী করেছেন বলিউডে, তাতে তাঁর অনুরাগীরা আশা করছেন খুব শীঘ্রই আবার নিজের পুরানো মেজাজে ফিরবেন তাঁদের প্রিয় তারকা।

Categories
বিনোদন ভিডিও

‘তোমার চারটে বিয়ে’, প্রসেনজিতের ব‍্যক্তিগত জীবন নিয়ে মুখ খুললেন দেব

আসন্ন ‘কাছের মানুষ’ (Kacher Manush) ছবির প্রচারে ব্যক্তিগতভাবে অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় (Prosenjit Chatterjee)-কে আক্রমণ করলেন সংসদ অভিনেতা দেব। তবে পরে জানা গিয়েছে, পুরোটাই ছবির প্রচারের জন্য।

২০০৪ সালে ‘অগ্নিশপথ’ সিনেমার মধ্যে দিয়ে বিনোদন জগতে যাত্রা শুরু দেবের। এর পরে ‘আই লাভ ইউ’ (I Love You), ‘প্রেমের কাহিনী’ (Premer Kahini), ‘মন মানে না’ (Mon Mane Na), ‘চ্যালেঞ্জ’ (Challenge), ‘চ্যাম্প’ (Chaamp) ,’কবীর’ (Kabir) প্রভৃতি সিনেমায় অসাধারণ অভিনয় করে দর্শকদের মন জয় করে নিয়েছেন তিনি। অভিনয়ের পাশাপাশি বাবার সঙ্গে একটি প্রযোজনা সংস্থাও খুলেছেন দেব, যার নাম ‘দেব এন্টারটেইনমেন্ট ভেঞ্চার্স’ (Dev Entertainment Ventures) ।

অন্যদিকে হৃষিকেশ মুখার্জি (Hrishikesh Mukherjee) পরিচালিত ‘ছোট্ট জিজ্ঞাসা’ (Chotto Jigyasa) সিনেমায় শিশুশিল্পী হিসেবে প্রথম আত্মপ্রকাশ করেছিলেন টলিউডে ‘বুম্বাদা’ নামে পরিচিত অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। এর পরে এখন পর্যন্ত অনেক হিট ছবি উপহার দিয়েছেন টলিউড ইন্ডাস্ট্রিকে। তাঁর অভিনীত সিনেমার মধ্যে অন্যতম হল ‘অমর সঙ্গী’ (Amar Sangi) , ‘চোখের বালি’ (Chokher Bali ), ‘দোসর’ (Dosar), ‘সব চরিত্র কাল্পনিক’ (Shob Charitro Kalponik), ‘অটোগ্রাফ’ (Autograph) ‘ক্ষত’ (Khawto), প্রাক্তন (Praktan) , ‘জাতিস্মর’ (Jaatishwar) প্রভৃতি।

দেব প্রযোজিত ‘ককপিট’ (Cockpit) সিনেমায় অতিথি শিল্পী ছিলেন প্রসেনজিৎ। এর পরে এই দুই নায়কের নিজেদের মধ্যে মনোমালিন্য থাকায় একসাথে আর কাজ করা হয়ে ওঠেনি। সম্প্রতি পথিকৃৎ বসুর (Pathikrit Basu) এই নতুন সিনেমায় আবার একসাথে দেখতে পাওয়া যাবে এই জুটিকে। তবে এই ছবির প্রচারে এসে প্রসেনজিতের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বেশ বিস্ফোরক মন্তব্য করে ফেলেছেন দেব। তাঁর বিয়ে নিয়ে দেব মজা করে বলেছিলেন প্রসেনজিতের চারটে বিয়ে। কিন্তু সেই মজা প্রসঙ্গে প্রসেনজিৎ কোনো উত্তর না দিয়ে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দেন তাঁর তিনটে বিয়ে। এই ছবির প্রচার উপলক্ষ্যে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেইখানেই দেখতে পাওয়া গিয়েছে এই বিরল দৃশ্য। প্রসেনজিতের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে মানুষ বরাবরই বেশ কৌতুহলী।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Dev Adhikari (@imdevadhikari)

প্রথমে দেবশ্রী রায়ের (Debashree Roy) সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার কিছুদিন পরে বিচ্ছেদ হয়ে যায় জনপ্রিয় এই জুটির। তারপর প্রসেনজিৎ বিয়ে করেছিলেন অপর্ণা গুহ ঠাকুরতাকে (Aparna Guhathakurta)। এই বিয়ে ভেঙে যাওয়ার পরে বর্তমানে অর্পিতা চট্টোপাধ‍্যায়ের (Arpita Chatterjee) সাথে সংসার করছেন তিনি। স্ট্যান্ড আপ কমেডির আড়ালে এই সত্যি এইভাবে প্রকাশিত হবে সেটা বোধহয় অভিনেতা নিজেই ভাবতে পারেননি। কারণ প্রথমে প্রসেনজিৎকেই কমেডি করতে বলা হয়েছিল নিজের ব্যাক্তিগত জীবন নিয়ে। তিনি করতে রাজি না হওয়ায় ময়দানে নেমেছিলেন দেব। আর তাঁর পরেই মানুষকে হাসাতে গিয়ে এইরকম মন্তব্য করে বসেন তিনি।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Dev Adhikari (@imdevadhikari)

ছবির প্রচারে এর আগেও অনেক বিতর্কিত পন্থার ব্যবহার করেছেন কলাকুশলীরা। তবে ছবি মুক্তি পর্যন্তই এই মন্তব্যগুলি দর্শকদের মনে অনেক প্রশ্নের জন্ম দিত। ছবির সাফল্যর উপরে এইসব বিতর্কিত মন্তব্যে অনেকটাই প্রভাব ফেলত। এই ছবির প্রচারেও ব্যবহার করা হল এই চিরাচরিত পন্থা। এই নিয়ে দুই নায়কের অনুরাগীদের কি প্রতিক্রিয়া সেই বিষয়ে এখনও কিছু জানতে পারা যায়নি।

Categories
অফবিট ভাইরাল ভিডিও ভিডিও

সমুদ্রের পাড়ে অসাধারণ অঙ্গভঙ্গিতে বেলি ডান্স করে তাক লাগালেন সুন্দরী যুবতী, রইল ভিডিও

বেলি ড্যান্সের ড্যান্সের মাধ্যমে সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনদের মন জিতে নিয়েছেন মার্কিন মহিলা মিস থেয়া (Miss Thea)। বেশ কিছুদিন আগে ভাইরাল হয়েছিল তাঁর নাচের ভিডিওটি। দর্শকরা ইতিমধ্যে বেশ পছন্দ করেছেন তাঁর নাচ।

বেলি ড্যান্সে তাঁর পারদর্শিতা সমগ্র উপস্থাপনার মধ্যে বারবার ফুটে উঠেছে। তার উপরে সমুদ্রের মনোরম পরিবেশ একটা আলাদা মাত্রা যোগ করেছে তাঁর নাচের মধ্যে। বেশ দৃষ্টিনন্দন পুরো উপস্থাপনাটি। থেয়া দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়ার একটি ড্যান্স একাডেমির ইন্সট্রাক্টর। এর পাশাপাশি তিনি একজন দক্ষ পারফর্মার। ভাইরাল ভিডিওটিতে থেয়ার পরনে ছিল কালো রঙের বিকিনি এবং স্কার্ট। থেয়া তাঁর অসাধারণ নাচের মধ্যে দিয়ে পুরনো দিনের ব্যান্ড ক্যামেলের (Camel) নস্টালজিয়া নতুন করে ফিরিয়ে এনেছেন দর্শকদের মধ্যে।

১৯৮১ সালে মুক্তি পেয়েছিল এই ব্যান্ডের অ্যালবাম ‘চামেলিওন’ (Chameleon) । থেয়া যে গানে নাচ করেছেন সেটি এই অ্যালবাম থেকেই নেওয়া। ১৯৭১ সালে তৈরী হয়েছিল প্রোগ্রেসিভ ব্যান্ড ক্যামেল। রক গান ছাড়াও জ্যাজ, ফোক কিংবা ক্লাসিকাল মিউজিকের কারণেও এই ব্যান্ডের জনপ্রিয়তা হয়েছিল আকাশছোঁয়া। যারা আগে এই ব্যান্ডের গান শোনেনি তাঁরা থেয়ার এই মনোমুগ্ধকর ভিডিওটি দেখার পরে নাচের সাথে সাথে গানটিরও প্রেমে পড়ে গিয়েছেন। দর্শক এতটাই পছন্দ করেছেন তাঁর এই পাফরম্যান্স যে ভিডিওটির লাইকস এবং ভিউস সংখ্যা বেশ ঈর্ষণীয় জায়গায় পৌঁছে গিয়েছে। বর্তমানে ভিডিওটির লাইকস সংখ্যা ২ হাজার এবং ভিউস সংখ্যা ৩ লাখের উপরে।

ভিডিওটি পুরনো দিনের ভালোলাগায় আচ্ছন্ন করে দিয়েছিল দর্শকদের। শুধুমাত্র এই ভিডিওর ক্ষেত্রেই নয় এর আগেও এইরকম হয়েছে। পুরানো দিনের হারিয়ে যাওয়া কোনো গান আবার নতুন করে ধরা দিয়েছে দর্শকদের কাছে। সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে মানুষ নতুন করে প্রেমে পড়েছে পুরানের ।

Categories
বিনোদন ভাইরাল ভিডিও ভিডিও

বাড়ির ছাদে শালিক পাখির সঙ্গে কথোপকথন ভুবন বাদ্যকরের, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

সম্প্রতি জনপ্রিয় শিল্পী ভুবন বাদ্যকারের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। পাখিদের সাথে সময় কাটানোর সময় ক্যামেরাবন্দি হয়েছিলেন এই শিল্পী।

জীবিকা নির্বাহের জন্য একসময় কাঁচা বাদাম বিক্রি করতেন ভুবনবাবু। বাদাম বিক্রি করার সময় তাঁর গাওয়া গান একসময় ভাইরাল হয়ে যায় চতুর্দিকে। রাতারাতি বিখ্যাত হয়ে গিয়েছিলেন গানের দৌলতে। তাঁর গানের জনপ্রিয়তা একসময় ছাড়িয়েছিল দেশ কালের গণ্ডিও। এর পরে অ্যালবামে গান গাওয়ার সুযোগ পেয়ে আরো বেশি পরিচিতি পেয়েছিলেন। পেশাদার জগতে সাফল্য পাওয়ার পরে বর্তমানে তাঁর আর্থিক উন্নতিও হয়েছে। নিজের পুরনো বাড়িকে নতুনভাবে সাজিয়েছেন। গানের পাশাপাশি যাত্রাতেও যোগ দিয়েছেন সম্প্রতি।

বেশ কিছুদিন আগে নিজের ইউটিউব চ্যানেলে একটি ভিডিও আপলোড করেছিলেন ভুবনবাবু। সেই ভিডিওটিতে দেখতে পাওয়া গিয়েছে ছাদের উপরে উঠে পাখিদের সাথে কথা বলার চেষ্টা করছেন শিল্পী। এমনকি পাখিদের খাবার খাওয়ানোর সময় দর্শকদের সাথেও কথা বলছিলেন। পাখিদের খাবার খাইয়ে বেশ খুশি তিনি। তাঁর মুখের অভিব্যক্তিতেই স্পষ্ট হয়ে উঠেছে মনের আনন্দ। বর্তমানে নিজের এই চ্যানেল থেকে ভালো পরিমানে পরিচিতি পেয়েছেন ভুবনবাবু। চ্যানেল থেকে উপার্জনও মন্দ নয় তাঁর। আগে শুধুমাত্র বাংলাতেই কথা বলতেন। এখন হিন্দিতেও কথা বলার চেষ্টা করেন তিনি। সব মিলিয়ে বেশ ভালোভাবেই দিন কাটছে তাঁর।

প্রতিভা মানুষের জীবনকে কতটা বদলে দিতে পারে সেটার সবচেয়ে বড় উদাহরণ হলেন ভুবনবাবু। সামাজিক মাধ্যমে জনপ্রিয়তা পাওয়ার পরে তাঁর জীবনযাত্রা যেমন বদলে গিয়েছে তেমনি তাঁর কাজের পরিধিও বৃদ্ধি পেয়েছে আগে থেকে অনেক বেশি।