Categories
লাইফ স্টাইল

মসুর ডাল এবং মুড়ি দিয়ে বানিয়ে ফেলুন দুর্দান্ত স্বাদের এই ইউনিক মুখরোচক, শিখে নিন রেসিপি

বিকেলের জলখাবার বা স্ন্যাক্সের (Snacks) জন্য মুখরোচক খাবার খেতে সকলেই পছন্দ করেন। কিন্তু নিয়মিত বাইরের তেলেভাজাজাতীয় খাবার খেলে তা যে শরীরের ওপর ক্ষতিকারক প্রভাব ফেলবে এই বিষয়টি কারোরই অজানা নয়। আজ তাই আপনাদের সঙ্গে ভাগ করে নেবো মুড়ি ও মুসুর ডাল দিয়ে বানানো এক অভিনব স্ন্যাক্সের রেসিপি যা বানানো খুব সহজ। মুড়ি ও মুসুর ডালের মুখরোচক এই কাটলেট একবার খেলে এর স্বাদ মুখে লেগে থাকবে।

•উপকরণ:
১) মুড়ি
২) মুসুর ডাল
৩) পেঁয়াজ কুচি
৪) গাজর
৫) ধনেপাতা কুচি
৬) নুন
৭) চিলি ফ্লেক্স
৮) ভাজা মশলা গুঁড়ো
৯) গরম মশলা গুঁড়ো
১০) বেসন
১১) তেল

•প্রণালী:
প্রথমেই ১ বাটি মুড়ি মিক্সার গ্রাইন্ডারে দিয়ে মিহি গুঁড়ো করে নিতে হবে। মুড়ি গুঁড়ো হয়ে গেলে অন্য একটি পাত্রে ঢেলে রাখতে হবে। অপরদিকে, ১/২ কাপ মুসুর ডাল ধুয়ে ১৫-২০ মিনিট জলে ভিজিয়ে রাখতে হবে। নির্দিষ্ট সময় ভিজিয়ে রাখার পর মুসুর ডাল মিক্সার গ্রাইন্ডারে দিয়ে জল ছাড়াই পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। এবারে আগে থেকে প্রস্তুত করে রাখা মুড়ির গুঁড়োর মধ্যে মুসুর ডালের এই পেস্ট দিয়ে দিতে হবে। মুড়ির গুঁড়ো ও মুসুর ডালের পেস্ট খুব ভালো করে চামচ দিয়ে মিশিয়ে নিতে হবে।

এরপরে ওই মিশ্রণের মধ্যে একটি মাঝারি সাইজের পেঁয়াজ কুচি, কিছু পরিমাণ গ্রেট করে নেওয়া গাজর, কিছু পরিমাণ ধনেপাতা কুচি, স্বাদ অনুযায়ী নুন, ১ চামচ চিলি ফ্লেক্স, ১/৪ চামচ ভাজা মশলা গুঁড়ো (গোটা জিরে ও গোটা ধনে শুকনো খোলায় নেড়ে গুঁড়ো করে এই মশলা বানাতে হবে), ১/৪ চামচ গরম মশলা গুঁড়ো ও ২ চামচ বেসন দিয়ে সবকিছু খুব ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে।

এবারে হাতে সামান্য তেল লাগিয়ে এই মিশ্রণ থেকে কিছু পরিমাণ করে নিয়ে হাতে করে চেপে চেপে প্রথমে গোল বল ও তারপর লম্বা বা চৌকো কাটলেটের আকৃতি দিতে হবে। এইভাবে পুরো মিশ্রণ থেকে যতগুলি সম্ভব কাটলেট বানিয়ে নিতে হবে। এরপর গ্যাসে ফ্রাইং প্যান বসিয়ে পরিমাণ অনুযায়ী তেল দিয়ে গরম করে নিতে হবে। তেল গরম হয়ে গেলে তার মধ্যে একসাথে চার-পাঁচটি কাটলেট দিয়ে দিতে হবে। বেশ খানিকক্ষণ সময় নিয়ে প্রত্যেকটি কাটলেট উল্টেপাল্টে খুব ভালো করে ভেজে নিতে হবে।

বাদামি রঙ না আসা পর্যন্ত প্রত্যেকটি কাটলেট ভাজতে হবে। ভাজা হয়ে গেলে নামিয়ে নিয়ে পছন্দমতো সস বা কাসুন্দির সঙ্গে পরিবেশন করুন মুড়ি ও মুসুর ডালের এই অভিনব কাটলেট।