Categories
নিউজ

জেলের মধ্যে কবজি ডুবিয়ে খাসির মাংস খেলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়

সম্প্রতি এনফোর্মেন্ট ডিরেক্টোরেটের হাতে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির মামলায় গ্রেফতার হয়েছেন রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। দক্ষিণ কলকাতার এবং বেলঘরিয়ার ফ্ল্যাট মিলিয়ে পাওয়া গিয়েছে প্রায় ৫০ কোটি টাকার কাছাকাছি নগদ অর্থ, সেই সাথে মিলেছে সোনার অলঙ্কার এবং বিস্কুট। বর্তমানে তাঁর ঠিকানা প্রেসিডেন্সি জেলের অন্ধকার কুঠুরি। কিন্তু যতই হোক রাজ্যের প্রাক্তনমন্ত্রী বলে কথা, যেমন তেমন করে তো আর সাধারণ আসামিদের মতো রাখা যায় না তাঁকে। তাই মিলেছে একটি চৌকি।

রাজনৈতিক মহলের প্রায় সকলেই জানেন খেতে ভালোবাসেন পার্থ চট্টোপাধ্যায় বরাবরই। জেলে গিয়েছেন তো কি হয়েছে, রাজার রাজত্ব কি আর একদিনে শেষ হয়। তাই প্রথমদিকে জেলের খাবারে অনীহা প্রকাশ করতেন পার্থবাবু। শুধু তাই নয়, সিজিও কমপ্লেক্সে রাতে রুটি খেতেও চাইতেন না পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

তবে অবশেষে গতকাল বেশ তৃপ্তি করেই খেয়েছেন দুপুরের ভাত, কারণ ভাতের থালায় ছিল খাসির মাংস। জেল সূত্রে খবর, গতকাল ছিল মহরম সেই কারণেই অন্যান্য দিনের থেকে আলাদা ছিল মেনু। আসামিদের জন্যে ছিল খাসির মাংস। তবে শুধু দুর্গাপুজো, ঈদ, মহরম, স্বাধীনতা দিবস, নববর্ষ এই রকম বিশেষ দিনগুলিতেই থাকে বিশেষ মেনু।

সাধারণত জেলে সপ্তাহে তিনদিন মাছ, মুরগীর মাংস, ডিম থাকে। সপ্তাহের বাকি চারদিনের মধ্যে একদিন থাকে সয়াবিন এবং বাকি তিনদিন থাকে নিরামিষ খাবার। এখন তাতেই সন্তুষ্ট থাকতে হয় রাজ্যের প্রাক্তনমন্ত্রীকে। তবে জানা গিয়েছে, একদিন জেলের ক্যান্টিন থেকে নিজেই কিনে খেয়েছেন চপ এবং বেগুনি। মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়, চেষ্টা করছেন জেলের পরিবেশের সাথে মানিয়ে নেওয়ারও।