Categories
লাইফ স্টাইল

মসলায় ছাড়াই বানিয়ে ফেলুন দুর্দান্ত স্বাদের আলুর তরকারি, হাত চাটবে আট থেকে আশি, রইল রেসিপি

আলুর তরকারি খেতে অনেকেই ভালোবাসেন। ভাত ,রুটি কিংবা লুচির সাথে আলুর তরকারি একেবারে সকালের ব্রেকফাস্ট নিমেষেই জমিয়ে দেয়। মশলা দিয়ে সুন্দর করে রান্না করলে যেমন এই তরকারি খেতে ভালো লাগে তেমনি মশলা ছাড়াও এর স্বাদ হয় অপূর্ব। মশলা ছাড়া কিভাবে আলুর এই তরকারি বানানো যায় তার রেসিপি দেখে নেবো আজকে।

উপকরণ:
১. সাদা তেল
২. পাঁচফোড়ন
৩. হিং
৪. গোটা শুকনো লঙ্কা
৫. আলু
৬. নুন
৭. টমেটো
৮. কাঁচালঙ্কা
৯. চিনি

প্রণালী :
কড়াই প্রথমে গরম করে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ১ চামচ সাদা তেল। সর্ষের তেলও এই রান্নায় ব্যবহার করা যাবে। তেল ভালো করে গরম হয়ে গেলে এর মধ্যে ফোড়ন হিসেবে দিয়ে দিতে হবে ১ চামচ পাঁচফোড়ন ,এক চিমটে হিং এবং একটা শুকনো লঙ্কা।

পাঁচফোঁড়নের পরিবর্তে কালোজিরেও ব্যবহার করা যায়। তবে পাঁচফোঁড়ন দিলে রান্নার স্বাদ বেশি ভালো হয়। ফোড়নগুলিকে সামান্য নাড়াচাড়া করে নেওয়ার পরে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ৩টি ডুমো ডুমো করে কেটে রাখা আলু। স্বাদমতো নুন এবং মাঝারি সাইজের একটি টমেটোকে কেটে নিয়ে আলুর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে। গ্যাসের আঁচ মাঝারি থেকে হাইতে রেখে আলু এবং টমেটোকে ভালো করে ৩ থেকে ৪ মিনিট ধরে ভেজে নিতে হবে।

টমেটো একটু নরম হয়ে এলে আর আলু ভাজা নিয়ে গেলে এর মধ্যে ঝোলের জন্য যতটা দরকার ততটা জল দিয়ে দিতে হবে। জলের পরিমান একটু বেশি রাখতে হবে যাতে আলুগুলো ভালো করে সেদ্ধ হয়ে যায়। জল দেওয়ার পরে চারটে চেরা কাঁচালঙ্কা দিয়ে দিতে হবে। আর দিতে হবে স্বাদমতো একটু চিনি। নিরামিষ রান্নায় চিনি ব্যবহার করলে এর স্বাদ আরো ভালো হয়।

রান্নার এই পর্যায়ে নুন ভালো করে দেখে নিতে হবে। নুন কম হলে হাফ টেবিল চামচ নুন দিতে হবে। নুন ঠিক থাকলে দেওয়ার প্রয়োজন নেই। তাহলে রান্নায় নুন বেশি হয়ে যাওয়ার সম্ভবনা থাকবে। ১৫ মিনিটের জন্য গ্যাসের আঁচকে মিডিয়াম থেকে হাইতে রেখে ভালো করে ঝোলটাকে ফুটিয়ে নিতে হবে।

ঝোল ভালো করে ফুটে গেলে আলু ভালো করে সেদ্ধ হয়ে যাবে। ঝোল ঘন হয়ে এলে গ্যাসের আঁচ বন্ধ করে নামিয়ে নিতে হবে। যারা নতুন রান্না করছেন তাদের জন্য এটি একটি খুব সহজ রেসিপি।