May 20, 2024

দুপুরবেলাতে (Lunch) ভাতের সাথে অথবা রাতে রুটি দিয়ে প্রতিদিন এক তরকারি খেতে কারোরই ভালো লাগেনা। স্বাদ বদলানোর জন্য আমরা মাঝেমধ্যেই এটা ওটা রান্না করে থাকি। আজকের এই প্রতিবেদনে পটল দিয়ে এক দুর্দান্ত রেসিপি শেয়ার করা হলো, যা একবার খেলে আপনি তার স্বাদ জীবনে ভুলবেন না।

উপকরণ:-

১. পটল
২. নুন
৩. হলুদ গুঁড়ো
৪. লঙ্কাগুঁড়ো
৫. জিরে গুঁড়ো
৬. ধনে গুঁড়ো
৭. সেদ্ধ করা আলু
৮. বেসন
৯. টমেটো
১০. কাঁচা লঙ্কা
১১. চিনেবাদাম
১২. ঘি
১৩.গরম মসলা
১৪. সাদা তেল

প্রণালী:-

প্রথমেই পাঁচটা পটল ভালোভাবে খোসা ছাড়িয়ে গোল গোল করে কেটে নিতে হবে। এরপর তার ভেতর থেকে সমস্ত বীজ বের করে নিতে হবে। এরপর একটি কড়াইতে পরিমাণ মতো তেল দিন। তেল গরম হলে তার মধ্যে একে একে আদা বাটা, ধনে গুঁড়ো , জিরেগুঁড়ো, শুকনো লঙ্কাগুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো, পরিমাণ মতো নুন,মিষ্টি ভালোভাবে মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর তার সাথে আগে থেকে সিদ্ধ করে রাখা দুটো আলু দিয়ে সবকিছু ভালোভাবে মিশিয়ে নিতে হবে। পুর রেডি হয়ে গেলে সেটা ঠান্ডা করতে দিন। এরপর আগে থেকে গোল করে রাখা পটলের মধ্যে সেই আলুর পুর ভরে রাখুন। এরপর একটি বাটিতে চার চামচ বেসন পরিমাণ মতো নুন,হলুদ গুঁড়ো দিয়ে জল দিয়ে একটি ব্যাটারে পরিণত করুন। এরপর আলুর পুর ভরে রাখা পটলগুলি সেই ব্যাটারে ডুবিয়ে তেলে ভালোভাবে ভেজে তুলে নিন। এরপর একটি কড়াইতে তেল দিয়ে তার মধ্যে একে একে ধনে গুঁড়ো ,জিরেগুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো, শুকনো লঙ্কা গুঁড়ো, গরম মসলাগুঁড়ো সবকিছু দিয়ে কষাতে হবে। তারপর এর মধ্যে টমেটো এবং চিনেবাদাম বাটা যোগ করুন।

অল্প একটু জল দিয়ে মসলা ফুটতে দিন। এরপর আগে থেকে ভেজে রাখা পটলগুলো তার মধ্যে দিয়ে একটু নাড়াচাড়া করে অল্প একটু জল দিয়ে কিছুক্ষণের জন্য সিদ্ধ হতে দিন। এরপর ওপর থেকে ঘি ছড়িয়ে ভাত বা রুটির সাথে পরিবেশন করুন এই অসাধারণ পটলের রেসিপি।