Categories
নিউজ

এই সরকারি স্কিমে বিনিয়োগ করলে এককালীন পেয়ে যাবেন ২০ লাখ টাকা, জেনে নিন বিস্তারিত

সন্তানের জন্য ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা (Future Planning) সব বাবা-মা করে থাকেন। নিজস্ব আর্থিক অবস্থার ওপর ভিত্তি করে সবকিছু মাথায় রেখে ছেলে বা মেয়ে উভয়েরই শিক্ষা, পরবর্তী জীবন, বিয়ে সবকিছু নিয়ে মা-বাবা বিভিন্ন রকম পরিকল্পনা করে থাকেন। তবে আমাদের দেশ ভারতবর্ষে সাধারণত সামাজিক গঠনের জন্য মেয়ের মা-বাবারা বিয়ে নিয়ে অধিক মাত্রায় চিন্তাগ্রস্ত থাকেন। মেয়ের বিয়ের বয়স হওয়ার অনেক বছর আগে থেকেই অনেক মা-বাবাকে মেয়ের বিয়ের জন্য অর্থ সঞ্চয় করতে দেখা যায়।

বিভিন্ন ব্যাঙ্কে জীবন বীমা সংস্থায় এই কারণে অনেক ধরণের প্রকল্প বা সুযোগ-সুবিধা রয়েছে। এমন কী, ভারতবর্ষের কেন্দ্রীয় সরকারের তরফেও মেয়েদের আর্থিক নিরাপত্তার উদ্দেশ্যে এমন এক প্রকল্পের সৃষ্টি করা হয়েছে। দেশের যে কোনো প্রান্তে যে কেউ নির্দিষ্ট কিছু শর্তাবলী মেনে এই প্রকল্পে বিনিয়োগ করতে পারবেন। ‘সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা’ (Sukanya Samriddhi Yojna) নামক এই প্রকল্পে কেবলমাত্র ১০ বছরের কম বয়সী মেয়েদের নামেই বিনিয়োগ করা যাবে। মেয়ের বয়স ৩ বছর হলেই তার নামে ‘সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা’-তে অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে। আপনাকে বার্ষিক ৪৮ হাজার নিয়োগ করতে হবে এবং আপনি ৭.৬% হারে সুদ পাবেন। এই প্রকল্পের অধীনে অ্যাকাউন্ট ম্যাচিওর না হ‌ওয়া অবধি আপনাকে মোট ৭ লক্ষ ২০ হাজার টাকা বিনিয়োগ করতে হবে।

অ্যাকাউন্ট ম্যাচিওর হ‌ওয়ার সময় আপনি অন্তত ২০ লাখ টাকা লাভ করবেন অর্থাৎ আপনার প্রাপ্য সুদের পরিমাণ থাকবে প্রায় ১৩ লাখ টাকা। এই প্রকল্পে আপনি সর্বনিম্ন ২৫০ টাকা এবং সর্বোচ্চ ১.৫ লক্ষ টাকা জমা করতে পারবেন। যদি আপনার একের অধিক মেয়ে থাকে তবে তাদের প্রত্যেকের জন্য‌ই আলাদা আলাদা অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। এই প্রকল্প ‘ট্যাক্স সেভিং প্রকল্প’; আয়কর আইনের ৮০সি ধারার আওতায় ‘সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা’-তে সঞ্চিত অর্থ, প্রাপ্য সুদ মেয়াদপূর্তির পরবর্তী সময়ে প্রাপ্য অর্থের ওপরে কর দিতে হয় না। ব্যাঙ্ক ও পোস্ট অফিস উভয় স্থানেই ‘সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা’-র অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে ও পরবর্তী সময়ে যে কোনো স্থানে অ্যাকাউন্ট ট্রান্সফার করা যাবে।