May 20, 2024

বাঙালী মানেই মাছ ভাত। আর বাঙালী সবচেয়ে প্রিয় মাছ হল ইলিশ। ইলিশ মাছের মালাই পাতুরির সাথে ধোঁয়া ওঠা গরম সাদা ভাত আমাদের কাছে এক অনন্য অনুভূতি। চলুন আজ দেখে নিই সেই প্রিয় ইলিশ মাছের মালাই পাতুরির রেসিপিটি।

উপকরণ:

১.ইলিশ মাছ – ৬ পিস
২.নারকেল কোরা – ৪ টেবিল চামচ
৩.সাদা সরষেবাটা– ২ টেবিল চামচ
৪.কালো সরষেবাটা – ২ টেবিল চামচ
৫.পোস্তবাটা – ১ টেবিল চামচ
৬.টকদই – ৩ টেবিল চামচ
৭.গোটা কাঁচালঙ্কা – বেশ কয়েকটি
৮.হলুদ- ১ চামচ
৯.নুন- স্বাদমতো
১০.সরষের তেল ৫-৬ চামচ
১১.মাছ মোড়া ও বাঁধার জন্যে কলাপাতা ও সুতো

প্রণালী:

প্রথমে ইলিশ মাছের টুকরোগুলো নুন, হলুদ মাখিয়ে কিছুক্ষণ রাখুন। সরষে আর পোস্ত আধ ঘন্টা আগে ভিজিয়ে রেখে একটু নুন ও কাঁচালঙ্কা দিয়ে বেটে নিন। এবার একটি পাত্রে এই বাটা মসলা, দই, কোরানো নারকেল, স্বাদমতো নুন, ১/২ চামচ হলুদ ও সরষের তেল একসাথে ভালো করে মেখে নিন। ইলিশ মাছের টুকরোগুলো এবার একে একে মিশ্রণের মধ্যে দিয়ে ভালো করে মসলা মাখিয়ে মিনিট দশেক ম্যারিনেট করে রেখে দিন। অন্যদিকে কলাপাতা চৌকো করে কেটে জলে ধুয়ে ভালো করে মুছে নিন। তারপর গ্যাসের আঁচে হালকা করে পাতার টুকরোগুলো একে একে সেকেঁ নিন। এতে পাতা নরম হয়ে আসবে। লক্ষ্য রাখবেন যাতে পাতা পুড়ে না যায়।

পাতুরি বসাতে হবে পাতার উল্টো দিকে অর্থাৎ অমসৃন দিকে। তাই পাতার উল্টো দিকে সরষের হাত তেল মাখিয়ে নিন। ম্যারিনেট করে রাখা ইলিশ মাছ এক পিস করে পাতায় রেখে ওপরে ও নিচে পেস্ট একটু মাখিয়ে দিন। এইবার ২ টি কাঁচালঙ্কা দিয়ে পাতা ভালো করে মুড়ে সুতো দিয়ে বেঁধে নিন। তাওয়া গরম করে ১/২ টেবিল চামচ তেল দিয়ে পাতায় মুড়ে রাখা মাছ তাওয়া দিয়ে ঢাকা দিতে হবে। আট-দশ মিনিট পর ঢাকা খুলে উল্টে দিয়ে অন্য পিঠ একভাবে আট-দশ মিনিট ঢাকা দিয়ে রাখতে হবে। এইবার ঢাকনা তুলে নিন। দেখবেন কলাপাতার উপরে হালকা পোড়া ধরেছে। ব্যাস তৈরি আমাদের সবার প্রিয় পদ ইলিশ মাছের মালাই পাতুরি। এরপরে একটু ঠান্ডা হলে বাঁধা কলাপাতা সমেত গরম ভাতের সাথে পরিবেশন করুন ইলিশ মাছের মালাই পাতুরি।