May 17, 2024

ইন্ডাস্ট্রির উঠতি নায়িকাদের নিয়ে অভিনেত্রী রূপাঞ্জনা মিত্রের (Rupanjana Mitra) বিস্ফোরক মন্তব্য বর্তমানে বেশ শোরগোল ফেলে দিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কিছু কলাকুশলী এই বিষয়ে আংশিক সহমত পোষণ করলেও অনেকেই এই বিষয়ে কিছু মন্তব্য করেননি।

রূপাঞ্জনা ছোটপর্দার জনপ্রিয় নায়িকাদের মধ্যে অন্যতম। ‘খেলা’ (Khela) , ‘এক আকাশের নিচে’ (Ek Akasher Niche) , ‘তুমি আসবে বলে’ (Tumi Asbe Bole), ‘চেকমেট’ (Checkmate) , ‘সিঁদুর খেলা’ (Sindoor Khela) প্রভৃতি ধারাবাহিকে অসাধারণ অভিনয় করে দর্শকদের মনে জায়গা করে নিয়েছেন। ধারাবাহিকের পাশাপাশি অভিনয় করেছেন অনেক সিনেমাতেও। তাঁর অভিনীত সিনেমাগুলির মধ্যে অন্যতম হল ‘দাদার আদেশ’ (Dadar Adesh) , ‘মগ্ন মৈনাক ‘ (Magno Mainak), ‘তিন কন্যা’ (Teen Tanaya), ‘ইকির মিকির’ (Ikir Mikir) প্রভৃতি।

সুঅভিনেত্রীর সঙ্গে রূপাঞ্জনা একজন স্পষ্টবাদী বলেও ইন্ডাস্ট্রিতে পরিচিত। সাম্প্রতিককালে মফস্বলের উঠতি শিল্পীদের দিকে তাঁর অভিযোগের আঙ্গুল তুলেছেন অভিনেত্রী। তাঁর মতে এর আগে যারা অভিনয় জগতে আসতেন, তাঁরা প্রত্যেকেই বেশ কষ্ট করে ইন্ডাস্ট্রিতে নিজের জায়গা বানিয়ে নিয়েছেন। অনেকে এখনও চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন নিজেদের আলাদা পরিচিতি বানানোর। কিন্তু বর্তমান প্রজন্মের অনেকে নায়িকাই কম সময়ে সাফল্য লাভের আশায় ইন্ডাস্ট্রির তথাকথিত প্ৰভাৱশালী ব্যক্তিদের নিজের অবলম্বন বানাচ্ছেন। এইসব ব্যক্তিরা আগে ইন্ডাস্ট্রিতে ‘গড ফাদার’ নামে পরিচিত হলেও এখন যুগের সাথে তাল মিলিয়ে ‘সুগার ড্যাডি’ বলেই বেশি খ্যাত। এইসব ব্যক্তিদের সাহায্যে উঠতি নায়িকারা কম সময়ে এবং বাকিদের থেকে কম পরিশ্রম করে আর্থিক দিক থেকে বিপুলভাবে লাভবান হচ্ছেন বলে তাঁর ধারণা। তবে এইসব সুগার ড্যাডিদের সাহচর্যে তাঁদের যে শুধুমাত্র আর্থিক দিক থেকেই উন্নতি হচ্ছে তাই নয়, আরও অনেক প্রভাবশালী ব্যক্তিদের সাথে তাঁদের পরিচিতি বাড়ছে। যাদের জন্য কেরিয়ারেও খুব দ্রুত উন্নতি করছেন এইসব নবাগত নায়িকারা। এর ফলে দুই পক্ষই সমানভাবে লাভবান হচ্ছে। নবাগত নায়িকারা খুব সহজে যেমন সাফল্য পাচ্ছেন তেমনি এইসব প্রভাবশালী ব্যক্তিরাও নায়িকাদের ব্যক্তিগত কিংবা সামাজিকভাবে ব্যবহার করছেন নিজেদের স্বার্থে । এইসব কারণে শুধুমাত্র অভিনয় দক্ষতাকে হাতিয়ার করে নিজের জায়গা বানানোর জন্য যাঁরা ইন্ডাস্ট্রিতে আসেন তাঁরা অনেকটাই পিছিয়ে পড়েন এইসব সুবিধাভোগীদের তুলনায়। অভিনেত্রী এই বিষয়ে আরও বলেছেন যে পরিবারের ভয়ে অনেকেই আগে এই রাস্তা অনুসরণ করেননি। আর যদি করেও থাকেন তাহলে এখনকার মতো এতটা প্রকাশ্যে আসার সুযোগ পেত না।

রূপাঞ্জনার এই বক্তব্যের সাথে অনেকেই সহমত পোষণ করলেও সবাই সমর্থন করেননি। রূপাঞ্জনার এই মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে নিজেদের বক্তব্য সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ছোটপর্দার দুই নায়ক নায়িকা ঊষসী রায় এবং গৌরব চক্রবর্তী। জি বাংলার ‘বকুল কথা’ (Bokul Kotha) ধারাবাহিকে নাম ভূমিকায় অভিনয় নিজেদের আলাদা পরিচিতি বানিয়েছেন এই অভিনেত্রী। এখন ধারাবাহিকের সঙ্গে অভিনয় করছেন বিভিন্ন ওয়েব সিরিজেও। এই বিষয়ে তিনি জানিয়েছেন, নবাগতদের এই সুযোগ নেওয়ার বিষয় সম্বন্ধে তাঁর ধারণা অনেক কম। তবে কষ্টের কোন বিকল্প নেই বলে তাঁর ধারণা। এর সাথে তিনি এও বলেছেন এই বিষয়ে যা ঘটছে তার কোথাও না কোথাও কিছুটা সত্যতা রয়েছে। অন্যদিকে অভিনেতা গৌরব জানিয়েছেন, নিজেদের জন্য কে কোন পন্থা অবলম্বন করবে সেটা একান্তই নিজের ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত। সৎ পথে থাকলে তাঁদের ভাল হবে। তবে যদি খারাপ কিছু করে থাকেন তবে সামাজিকভাবে সবার কাছেই সেটা প্রকাশিত হবে। তাঁর ধারণা সমাজের ইতিবাচক দিকেই সবার মনোনিবেশ করা উচিত।

ইন্ডাস্ট্রির অনেক না জানা কালো দিক মাঝে মধ্যেই এইভাবে সবার সামনে চলে আসে। দর্শকদের মনোরঞ্জনের আড়ালেও যে কত ঘটনা ঘটে সেটা এইরকম ঘটনা কিংবা মন্তব্য সামনে না এলে বোঝা যায় না।