Categories
লাইফ স্টাইল

এইভাবে কাঁচকলা রান্না করলে স্বাদ হবে দ্বিগুণ, হার মানাবে মাছ-মাংসের স্বাদকেও, শিখে নিন রেসিপি

বিশেষ নিরামিষ (Veg) দিনে কী দিয়ে ভাত খাওয়া হবে তা অনেক ক্ষেত্রেই চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়ায়। আজ আপনাদের সঙ্গে তাই কাঁচকলার এমন এক নিরামিষ রেসিপি ভাগ করে নেবো যা বানানো সহজ এবং স্বাদে হবে দুর্দান্ত। চলুন তাহলে আর দেরি না করে দেখে নেওয়া যাক ‘কাঁচকলার কোফতা কারি’-র রেসিপি।

উপকরণ:
১)কাঁচকলা
২)আলু
৩)জল
৪)নুন
৫)হলুদ গুঁড়ো
৬)মটর ডাল
৭)কাঁচালঙ্কা
৮)আদা
৯)শুকনো লঙ্কা গুঁড়ো
১০)ধনে গুঁড়ো
১১)জিরে গুঁড়ো
১২)গরম মশলা গুঁড়ো
১৩)ঘি
১৪)তেল
১৫)তেজপাতা
১৬)শুকনো লঙ্কা
১৭)গোটা জিরে
১৮)চিনি
১৯)টমেটো-আদা-কাঁচালঙ্কাবাটা
২০)কাশ্মীরি লঙ্কা গুঁড়ো

প্রণালী:

প্রথমে দুটো কাঁচকলা ধুয়ে সামনের ও পেছনের অংশ কেটে বাদ দিয়ে আঁশ ছাড়িয়ে নিতে হবে। দুটো কাঁচকলাই ছোট ছোট তিন-চারটি টুকরোয় কেটে নিতে হবে। এরপর চার-পাঁচটি আলু একটু বড়ো টুকরো করে কেটে নিতে হবে। এবারে প্রেসার কুকারে পরিমাণ অনুযায়ী জল দিয়ে তার মধ্যে আলু ও কাঁচকলা দিয়ে সেদ্ধ করে নিতে হবে, সেদ্ধ করার সময় কুকারে ১ চামচ নুন ও ১/২ চামচ হলুদ গুঁড়ো দিয়ে দিতে হবে। অন্যদিকে, ১ কাপ মটর ডাল ৩০-৪০ মিনিট জল দিয়ে ভিজিয়ে রাখতে হবে। এরপরে মিক্সার গ্রাইন্ডারে ওই ভিজিয়ে রাখা ডাল, একটি গোটা কাঁচালঙ্কা, দুই টুকরো আদা ও ১ চামচ নুন দিয়ে বেটে নিতে হবে।

এবারে সেদ্ধ করে নেওয়া কাঁচকলার টুকরোগুলো খোসা ছাড়িয়ে একটি পাত্রে রেখে তার মধ্যে ১ চামচ নুন, ১/২ চামচ হলুদ গুঁড়ো, ১ চামচ শুকনো লঙ্কা গুঁড়ো, ১ চামচ ধনে গুঁড়ো, ১ চামচ জিরে গুঁড়ো, ১/২ চামচ গরম মশলা গুঁড়ো, ২ চামচ ডালবাটা, ১ চামচ ঘি দিয়ে হাতে করে সব একসাথে মেখে নিতে হবে। এবারে পাত্রে ১/২ কাপ বেসন দিয়ে আবারও মেখে ডো-এর মতো করে নিতে হবে। এবারে ওই ডো থেকে কিছু পরিমাণ করে নিয়ে কোফতা গড়ে নিতে হবে।

এরপর গ্যাসে কড়াই বসিয়ে পরিমাণ অনুযায়ী তেল দিয়ে গরম করে নিতে হবে। তেল গরম হয়ে গেলে কোফতাগুলো কড়াইয়ে দিয়ে উল্টেপাল্টে লালচে করে ভেজে নিতে হবে। কোফতা ভাজা হয়ে গেলে তেল ঝরিয়ে অন্য পাত্রে তুলে রাখতে হবে। কোফতা ভাজা হয়ে গেলে ওই তেলেই আগে থেকে সেদ্ধ করে রাখা আলুর টুকরোগুলোর খোসা ছাড়িয়ে দিয়ে ভালো করে ভেজে নিতে হবে। আলু ভাজা হয়ে গেলে তুলে নিয়ে কড়াইয়ে একটি তেজপাতা, একটি শুকনো লঙ্কা, ১/২ চামচ গোটা জিরে, ১ চামচ চিনি ও ১/২ টমেটো-আদা-কাঁচালঙ্কাবাটা দিয়ে বেশ খানিকক্ষণ একসাথে নেড়ে নিতে হবে।

এবারে কড়াইয়ে ১/২ চামচ নুন, ১ চামচ হলুদ গুঁড়ো, ১ চামচ কাশ্মীরি লঙ্কা গুঁড়ো, ২ চামচ ধনে গুঁড়ো, ১ চামচ জিরে গুঁড়ো ও ১/২ কাপ জল দিয়ে সব একসাথে মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর কড়াই ১০-১৫ মিনিট ঢাকা দিয়ে রেখে মশলা কষিয়ে নিতে হবে। এবারে কড়াইয়ে আগে থেকে ভেজে রাখা কোফতা, আলুর টুকরো ও আরো ১ কাপ জল দিয়ে খানিকক্ষণ নেড়েচেড়ে কড়াই আবার‌ও ১০ মিনিট ঢাকা দিয়ে রেখে রান্না করে নিতে হবে। ব্যস, তাহলেই তৈরি হয়ে যাবে দারুণ স্বাদের ‘কাঁচকলার কোফতা কারি’।

Categories
লাইফ স্টাইল

এইভাবে কাঁচকলা রান্না করলে হাত চাটবে আট থেকে আশি, শিখে নিন সিক্রেট রেসিপি

অনেকেই আছেন যারা কাঁচকলা খেতে ভালবাসেন না। অথচ কাঁচকলা স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। পেটের পক্ষে খুব ভাল। কাঁচকলাকে সুস্বাদুভাবে রান্না করা যায়। কাঁচকলার এই নিরামিষ পদটি একবার খেলে বারবার খেতে ইচ্ছা করবে। চলুন তবে দেখে নেওয়া যাক কাঁচকলার এই রেসিপিটি।

উপকরণ:
১.কাঁচাকলা ২ টি
২.নুন স্বাদমতো
৩.চিনি স্বাদমতো
৪.হলুদ গুঁড়ো ১/২ চামচ
৫.সাদা জিরে ১/২ চামচ
৬.শুকনোলঙ্কা ২ টি
৭.আদা বাটা ১/২ চামচ
৮.ধনে গুঁড়ো ১/২ চামচ
৯.জিরে গুঁড়ো ১/২ চামচ
১০.লঙ্কা গুঁড়ো ১/২ চামচ
১১.টক দই ২ চামচ
১২.কাঁচালঙ্কা ৪ টি
১৩.গরমমসলা গুঁড়ো ১/২ চামচ
১৪.সাদা তেল ৩ চামচ

প্রণালী:
প্রথমেই কাঁচাকলা দুটিকে খোসা ছাড়িয়ে গোলগোল করে কেটে নিতে হবে।

তারপর ১/২ চামচ নুন ও সামান্য হলুদ গুঁড়ো দিয়ে মিশিয়ে নিতে হবে। তারপর কড়াইতে ৩ চামচ সাদা তেল গরম করে তাতে কাঁচাকলাগুলোকে দিয়ে ভালোভাবে ভেজে নিতে হবে। ভাজা কাঁচকলার টুকরোগুলো আলাদা করে তুলে রেখে দিন।

এবার বাকি তেলে সামান্য জিরে ও শুকনোলঙ্কা ফোড়ন দিয়ে ১/২ চামচ আদা বাটা, ১/২ চামচ ধনে গুঁড়ো, ১/২ চামচ জিরে গুঁড়ো, সামান্য লঙ্কার গুঁড়ো আর সামান্য জল দিয়ে কষাতে হবে। মসলা কষিয়ে তেল ছাড়লে ২ চামচ টক দই দিয়ে ভালো করে মসলার সাথে কষিয়ে নিতে হবে। তারপর ৪ টে কাঁচালঙ্কা দিয়ে আরো মিনিট খানেক রান্না করে স্বাদমতো নুন ও চিনি দিয়ে ভালো করে মসলা কষান।

তেল ছাড়লে এইবারে ভেজে রাখা কাঁচাকলা মসলার মধ্যে দিয়ে দিন। আবার ভালো করে কাঁচকলা টুকরোগুলোকে মসলার সাথে মাখিয়ে নিন। তারপর পরিমান মত ঈষদুষ্ণ জল দিয়ে মিনিট দুয়েক রান্না করে নিতে হবে।

তারপর গরম মসলার গুঁড়ো দিয়ে মিশিয়ে নিয়ে আরও ১ মিনিট রান্না করে নিলেই একেবারে তৈরি কাঁচাকলার এই অনন্য রেসিপি। গরম গরম ভাত বা রুটির সাথে এই পদটি খেতে খুব ভাল লাগবে।