May 18, 2024

তিলোত্তমার মাথায় খুব শীঘ্রই যুক্ত হতে চলেছে নতুন এক পালক। গঙ্গাবক্ষের নিচে যানবাহন চলাচলের জন্য তৈরী হবে চওড়া সুড়ঙ্গ। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই খবর ভাইরাল হতেই বেশ আনন্দে রয়েছেন কলকাতাবাসী।

গঙ্গা কলকাতার গর্ব। এর অপার্থিব সৌন্দর্যকে উপেক্ষা করা কোনোভাবেই সম্ভব নয়। তবে ভারতের অন্যতম ব্যস্ত শহর কলকাতায় যানজট এক নিত্যনৈমিত্তিক ঘটনা। জরুরি কাজে যাওয়ার সময় কিংবা অফিসের সময়ে কলকাতার রাস্তায় যানজটের দৃশ্য খুব স্বাভাবিক হয়ে দাঁড়িয়েছে সবার কাছে। এবারে যানজটের ভোগান্তি থেকে শহরবাসীকে মুক্তি দেওয়ার জন্য গঙ্গাকেই বেছে নেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে।

খুব তাড়াতাড়ি গঙ্গাবক্ষের তলা দিয়ে চালু হবে পণ্যবাহী গাড়ি চলাচলের জন্য উপযুক্ত সুড়ঙ্গ। ২০২৩ সালের শুরুতেই কলকাতা থেকে হাওড়া পৌঁছে যাওয়া যাবে মেট্রোতে। মেট্রোর কাজ প্রায় শেষের দিকে। এর পরেই দীর্ঘ এই সুড়ঙ্গ তৈরির কাজ শুরু হবে বলে জানা গিয়েছে। এই সুড়ঙ্গ তৈরির প্রধান কারণ হলো খিদিরপুর ডক এবং নেতাজি সুভাষ ডকে দিয়ে যাওয়া আসা করা পণ্যবাহী গাড়ির কারণে সৃষ্টি হওয়া যানজট। দ্বিতীয় হুগলি সেতু দিয়ে আসা এইরকম ভারী ট্রাক এবং কন্টেনারের কারণে প্রায়শই যানজট তৈরী হয়। ৮০০ মিটার দৈর্ঘ্য এই সুড়ঙ্গ তৈরী হলে সেটি অনেকটাই কার্যকরী ভূমিকা পালন করবে বলে আশা করছেন বন্দর আধিকারিকরা। বর্তমানে সিলমোহর পড়ার অপেক্ষায় রয়েছে এই সুড়ঙ্গ তৈরির কাজ। আন্তর্জাতিক নির্মাণ সংস্থা ডিপিআর এই সুড়ঙ্গ তৈরির দায়িত্ব পেয়েছে। তাদের তত্ত্বাবধানে তৈরী হওয়া এই ছয় লেনের সুড়ঙ্গের কারণে বহু পণ্যবাহী গাড়ি কোনো ঝামেলা ছাড়াই খুব দ্রুত কাঙ্খিত জায়গায় পৌঁছে যেতে পারবে। এর ফলে শুধুমাত্র কলকাতা নয় যানজটমুক্ত হবে হাওড়া এবং পার্শ্ববর্তী এলাকাও।

কলকাতাকে নিত্যনতুনভাবে সাজিয়ে তুলতে কোনো প্রচেষ্টাই বাকি রাখছে না সরকার। প্রতিদিন নতুনভাবে যেন সেজে উঠছে তিলোত্তমা কলকাতা নগরী। এই সুড়ঙ্গ তৈরী হলে সেটি কলকাতার সৌন্দর্যকে আরো বহুগুন বাড়িয়ে দেবে সেটা বলাই বাহুল্য।