Categories
লাইফ স্টাইল

পেঁয়াজ রসুন ছাড়াই বানিয়ে ফেলুন শাহী পানির, ভাত কিংবা রুটির সঙ্গে পুরো জমে যাবে

নিরামিষের মধ্যে শাহী পনির একটি বিখ্যাত পদ। সুস্বাদু এই পদটি কোনরকম পিঁয়াজ রসুন ছাড়া আপনারা বাড়িতেই বানিয়ে নিতে পারেন। চলুন দেখে নিই এই রেসিপি।

উপকরণঃ
১.পনির( ৩০০গ্রাম)
২.লবঙ্গ ৬ টা
৩.এলাচ ৪ টা
৪.দারচিনি ১/২ ইঞ্চি
৫.জায়ফল ১/২ ইঞ্চি
৬.জয়ত্রী ১/২
৭.টমেটো
৮.আদা ১/২ ইঞ্চি
৯.কাজুবাদাম বাটা ২ টেবিল চামচ
১০.কাঁচালঙ্কা ৩ টি
১১.শুকনো লঙ্কাগুঁড়ো ১/২ চা চামচ
১২.হলুদগুঁড়ো ১/২ চা চামচ
১৩.কাশ্মীরি লঙ্কাগুঁড়ো ১ চা চামচ
১৪.জিরেগুঁড়ো ১/২ চা চামচ
১৫.ধনেগুঁড়ো ১/২ চা চামচ
১৬.তেজপাতা ২ টি
১৭.নুন স্বাদমতো
১৮.চিনি ১/২ চা চামচ
১৯.কসৌরি মেথি ২ টেবিল চামচ
২০.টকদই ২ টেবিল চামচ

প্রণালী
প্রথমে একটি মিক্সিং বোলের মধ্যে ৬ টা লবঙ্গ, ৪ টে ছোট এলাচ, ১/২ ইঞ্চি দারচিনি, ১/২ জায়ফল, ১/২ জৈত্রী, গুঁড়ো করে রাখতে হবে।এবার ওই গুঁড়ো অন্য একটি পাত্রে ঢেলে নিয়ে ওই মিক্সিং বোলে ১ টা মাঝারি টমেটো, ১/২ ইঞ্চি আদা, ২ টেবিল চামচ কাজু বাদাম, ২ টো কাঁচালঙ্কা,১ চা চামচ কাশ্মীরি লঙ্কাগুঁড়ো এবং পরিমাণমতো জল দিয়ে একটি পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে।

পনিরগুলো চৌকো চৌকো করে কেটে আধঘন্টা গরম জলে নুন দিয়ে ভিজিয়ে রাখতে হবে। আপনাদের ইচ্ছে হলে পরে একটু ভেজে নিতেও পারেন। এবার একটি কড়াইতে তেল গরম করে তার মধ্যে ২ টো তেজপাতা ও ৩ টি কাঁচা লঙ্কা ফোঁড়ন দিয়ে বানিয়ে রাখা গুঁড়ো মসলাটা দিয়ে দিতে হবে। এবার একটু নেড়ে নিয়ে টমেটো দিয়ে বানানো পেস্টটি ঠেলে দিতে হবে।

পেস্টটি ভালো করে কষানো হয়ে গেলে ১/২ চা চামচ করে হলুদগুঁড়ো, জিরেগুঁড়ো, লঙ্কাগুঁড়ো, ধনেগুঁড়ো দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। ভালো করে কষানোর পর সেটা থেকে তেল বেরিয়ে গেলে তার মধ্যে ২ টেবিল চামচ টকদই দিয়ে আবার ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে।

এবার আগে থেকেই সিদ্ধ করে রাখা পনির দিয়ে ভালো করে নাড়াচাড়া করে নিতে হবে খুব বেশি নাড়বেন না এতে পনির ভেঙে যেতে পারে। পনিরটা ভালো করে মেশানো হয়ে গেলে তার মধ্যে পরিমাণ মতো জল দিয়ে দিতে হবে। জল দিয়ে একটু ফুটে গেলে তার মধ্যে ১/২ চা চামচ পরিমাণ চিনি এবং স্বাদমতো নুন দিয়ে চার পাঁচ মিনিটের জন্য কড়াইটা ঢাকা দিয়ে দিতে হবে।

ঢাকনা খুলে এর মধ্যে ২ চা-চামচ কসৌরি মেথি দিয়ে আবার কিছুক্ষণের জন্য ঢাকনা চাপা দিয়ে রাখতে হবে। এরপর ঢাকনা খুলে গরম গরম পরিবেশন করুন শাহী পনির। রুটি, পরোটা বা ফ্রাইডরাইসের সাথে এটি খেতে খুবই ভাল লাগে।