May 25, 2024

রান্নাঘরে ব্যবহৃত পরিচিত উপাদানগুলি মধ্যে অন্যতম হল মেথি। তবে শুধুমাত্র রান্নাঘরেই নয় ঘরোয়া নানা প্রতিকারেও বেশ কার্যকরী মেথি। স্বাস্থ্যের পাশাপাশি ত্বক এবং চুলের যত্নেও খুব কার্যকরী এটি।

শরীরে রক্তের ভারসাম্য বজায় রাখা থেকে শুরু করে চুল পড়া রোধ করতেও সাহায্য করে এই মেথি। এর নানা ধরণের উপকারিতার জন্য একে অনেক ক্ষেত্রেই ‘সুপার ফুড’ বলে মানা হয়। বেশ কিছু গবেষণা এবং স্বাস্থ্য সমস্যায় মেথির কার্যকারিতার উল্লেখ রয়েছে। স্বাস্থ্যোজ্জ্বল সুন্দর চুলের জন্য মেথি বেশ কার্যকরী। চুলের স্বাস্থ্য বজায় রাখতে মেথিকে নানাভাবে ব্যবহার করা যাবে।

১. মেথির তেল সারাবছর মাথায় মাখলে চুলের গোড়া মজবুত হওয়ার সঙ্গে চুল পড়াও বন্ধ করতে সাহায্য করবে এটি। ২ থেকে ৩ চামচ মেথি নারকেল তেলের সাথে মিশিয়ে ভালো করে ফোটাতে হবে। মেথির বীজ এবং তেল ব্রাউন রঙের হয়ে গেলে নামিয়ে নিতে হবে। ঠাণ্ডা হলে চুলের গোড়ায় হালকাভাবে ভালো করে ম্যাসাজ করে নিতে হবে। তবে খেয়াল রাখতে হবে তেল গরম থাকাকালীন মাথায় দেওয়া যাবে না। দুই থেকে তিন সপ্তাহ এইভাবে মেথির তেল ব্যবহার করলে চুলের অনেক সমস্যার সমাধান হবে।

২. চুলে অনেকেই সপ্তাহান্তে কিংবা মাঝে মধ্যে ডিম ব্যবহার করেন। ডিম চুলের স্বাস্থ্যের পক্ষে খুব উপকারী। হাফ কাপ মেথির সাথে একটা অথবা দুটো ডিমের সাদা অংশ ভালো করে মিশিয়ে একটা মিশ্রণ তৈরী করে নিতে হবে। তবে এই মিশ্রণ তৈরী করে নেওয়ার আগে মেথিকে সারারাত ভালো করে ভিজিয়ে রাখতে হবে। এই মিশ্রণটি চুলে ভালো করে লাগিয়ে আধঘণ্টার জন্য রেখে দিতে হবে। এর পরে শ্যাম্পু দিতে হবে। সপ্তাহে একদিন করলে ভাল ফল পাওয়া যাবে।

৩. তবে সময় এবং পারিপার্শ্বিক উপাদানের অভাবে মেথির সাথে অন্য উপকরণ না মিশিয়ে শুধুমাত্র মেথি ব্যবহার করলেও ভালো ফল পাওয়া যাবে। আগের দিন রাতে মেথি ভালো করে ভিজিয়ে পরেরদিন পেস্ট তৈরী করে নিতে হবে। এই মিশ্রণটিকে চুলের গোড়ায় আধঘণ্টা রেখে দেওয়ার পরে মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে ভালো করে চুল ধুয়ে নিতে হবে। সপ্তাহে দু’দিন করলে ভালো ফল পাওয়া যাবে। তবে একদিন করলেও হবে।

৪. এছাড়া খুশকি কমাতে মেথি এবং ত্বক দইয়ের মিশ্রণ খুব কার্যকরী। ৪ থেকে ৫ চামচ মেথি আগের দিন রাতের বেলা ভিজিয়ে রেখে পরেরদিন এর একটি মিশ্রণ তৈরী করে নিতে হবে। ৪ কাপ দইয়ের সাথে এই মিশ্রণটিকে ভালভাবে মিশিয়ে চুলের গোড়ায় লাগিয়ে ২০ থেকে ২৫ মিনিটে রেখে দিতে হবে। এর পরে চুলে শ্যাম্পু করে নিতে হবে। সপ্তাহে তিনদিন এই মিশ্রণ ব্যবহার করলে খুশকির সমস্যা দূর হবে।

৫. যাদের স্ক্যাল্প খুব তৈলাক্ত তাঁদের ক্ষেত্রেও মেথি খুব উপযোগী। ২ চামচ মেথিকে আগের দিন ভালো ভাবে ভিজিয়ে রেখে পরের দিন পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। এর পরে এর সাথে মেশাতে হবে ২ চামচ আপেল সিডার ভিনিগার। পুরো মিশ্রণটিকে ভালোভাবে চুলে মিশিয়ে শ্যাম্পু করে নিলেই এই সমস্যা থেকে সমাধান মিলবে অতি সহজে। এইভাবে মেথি ব্যবহার করলে মাত্র একমাসের মধ্যেই ভাল ফল পাওয়া যাবে।

সতর্কীকরণ : যাদের মেথিতে আল্যার্জি রয়েছে তাঁরা এই বিশেষ ফেসপ্যাক ব্যবহারের আগে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নেবেন। শুধুমাত্র সংবাদ ২৪ অনলাইনের এই প্রতিবেদন পড়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেবেন না।