×
Categories
বিনোদন

সাদামাটা গৃহিনী থেকে বাংলার ‘মহানায়িকা’, জেনে নিন সুচিত্রা সেনের জীবনের নানা লড়াইয়ের কাহিনী

Advertisement

বাংলার ‘মহানায়িকা’ বলতে একজনকেই বোঝায়, তিনি হলেন ‘সুচিত্রা সেন।’ তিনি বাংলা চলচ্চিত্রের একজন অন্যতম কিংবদন্তি। তার জায়গায় এখনো পর্যন্ত কোন অভিনেত্রী পৌঁছতে পারেনি। ষাটের দশকে তার সেই গ্ল্যামার, আকর্ষণীয় চোখ এবং অসাধারণ অভিনয় দেখে মুগ্ধ হয়েছিলেন হাজার হাজার দর্শকেরা। আজও বাঙালির মনে তার জন্য একটা বিশেষ জায়গা রয়েছে। তার সেই বাঁকা ঠোঁটের হাসি দেখলে আজও পুরুষ ভক্তদের মনটা যেন আবেগে ভরে যায়। যতদিন যাবে একের পর এক নায়িকা আসবে যাবে কিন্তু মহানায়িকা সুচিত্রা সেন থেকে যাবে বাঙালি মনের চিলেকোঠায়। বাঙালির আবেগের সাথে জুড়ে গেছেন তিনি।

Advertisement
আরো পড়ুন -  বোনের হাত ধরেই দীর্ঘদিন পর বড় পর্দায় ফিরতে চলেছেন ‘মেজ বউ’ চুমকি চৌধুরী!

কবি রজনীকান্ত সেনের নাতনি হলেন রমা সেন। এই রমা প্রথমে একবার স্বামীর সাথে সিনেমার ইন্টারভিউ দিতে গিয়েছিলেন। প্রথম শব্দ উচ্চারনে এল নানা রকমের সমস্যা। প্রথমেই বাদ হয়ে যাচ্ছিলেন। তারপর নিজের জেদ আর অধ্যাবসায় বাংলা চলিত ভাষা শিখে পরের দিনই স্টুডিওতে পৌঁছালেন। এর পরেই ১৯৫১ সালে পরিচালক সুকুমার রায়ের সাথে প্রথম ‘১৯৫১ সালে সাত নম্বর কয়েদি’ সিনেমার তার আত্মপ্রকাশ ঘটলো। এরপর ১৯৫২ সালে স্বামীর সাথেই বাংলাদেশ ছেড়ে একেবারে পাকাপাকি ভাবে কলকাতায় চলে এলেন। তারপরেই টলিউডে ‘শেষ কথায়’ সিনেমাতে নায়িকারূপে ডেবিউ করলেন রমা। তবে এই সিনেমা কখনোই প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়নি।

আরো পড়ুন -  চুপিচুপি প্রেম ‘অপরাজিতা অপু’র সুস্মিতা, দেখেনিন অভিনেত্রীর প্রেমিকের আসল পরিচয়

তবে অভিনয় প্রবেশের পর তিনি তার নাম পাল্টে হলেন অভিনেত্রী সুচিত্রা সেন। এরপর ১৯৫৩ সালে ‘সাড়ে চুয়াত্তর’ ছবিতে উত্তম কুমারের বিপরীতে প্রথম অভিনয় করলেন। এই সিনেমাতে অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি দর্শকদের মনে বিশেষ জায়গা করে নিয়েছিলেন। তারপরে এই জুটি হয়ে গেল বাংলা সিনেমার সেরা জুটি। উত্তম-সুচিত্রা ছিল তখনকার চলচ্চিত্র জগতের এক আশীর্বাদ। তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক আবার কখনো দাম্পত্য জীবনের গল্পে তারা হয়ে উঠেছিলেন অনবদ্য ও আকর্ষণীয়। তারপরে এক বছর পর ১৯৫৪ সালে পরপর ৯ টি ছবিতে সই করেছিলেন সুচিত্রা সেন।

Advertisement
আরো পড়ুন -  স্পষ্ট খোলা অন্তর্বাস, খোলামেলা পোশাকে নেট দুনিয়ায় ঝড় তুললেন শ্রীলেখা মিত্র

তবে অভিনয় প্রবেশের পর তিনি তার নাম পাল্টে হলেন অভিনেত্রী সুচিত্রা সেন। এরপর ১৯৫৩ সালে ‘সাড়ে চুয়াত্তর’ ছবিতে উত্তম কুমারের বিপরীতে প্রথম অভিনয় করলেন। এই সিনেমাতে অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি দর্শকদের মনে বিশেষ জায়গা করে নিয়েছিলেন। তারপরে এই জুটি হয়ে গেল বাংলা সিনেমার সেরা জুটি। উত্তম-সুচিত্রা ছিল তখনকার চলচ্চিত্র জগতের এক আশীর্বাদ। তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক আবার কখনো দাম্পত্য জীবনের গল্পে তারা হয়ে উঠেছিলেন অনবদ্য ও আকর্ষণীয়। তারপরে এক বছর পর ১৯৫৪ সালে পরপর ৯ টি ছবিতে সই করেছিলেন সুচিত্রা সেন।

Advertisement