×
Categories
ভাইরাল ভিডিও

পাহাড়ে হানিমুনে গিয়ে রোম্যান্টিক বাংলা গানে নাচ মিঠাই-সিদ্ধার্থের, রইল ভিডিও

Advertisement

বাংলা ছোটপর্দার এক অত্যন্ত জনপ্রিয় ধারাবাহিক জি বাংলার ‘মিঠাই’ (Mithai)। জনপ্রিয়তার পাশাপাশি টিআরপি তালিকাতেও এই ধারাবাহিক রেকর্ড তৈরি করতে সক্ষম হয়েছিল। একটানা ৪৬ সপ্তাহ ধরে টিআরপি তালিকায় প্রথম স্থান দখল করে থাকার পর চলতি সপ্তাহে এই ধারাবাহিকের রেকর্ড ভেঙে গিয়েছে। হঠাৎ করেই প্রথম স্থান থেকে সোজা পাঁচ নম্বরে নেমে গিয়েছে ‘মিঠাই’। আর এই কারণে স্বাভাবিকভাবেই ধারাবাহিকের ভক্তরা বেশ মুষরে পড়েছেন।

Advertisement

তবে এবার ধারাবাহিকে এসেছে এমন এক ট্যুইস্ট যা দেখে দর্শকরা ভীষণ খুশি হয়েছেন। ধারাবাহিকের চিত্রনাট্য অনুযায়ী কলকাতা শহর থেকে অনেক দূরে উত্তরবঙ্গের এক পাহাড়ি এলাকায় বেড়াতে গিয়েছে মিঠাই-সিদ্ধার্থ ও দাদাই-ঠাম্মি। বস্তুত পাহাড়ের কোলে হানিমুন অর্থাৎ মধুচন্দ্রিমায় এসেছেন দাদাই ও ঠাম্মি। তাঁদের পাহারা দেওয়ার জন্য সিদ্ধার্থ এবং মিঠাইকে নিয়ে আসা হয়েছে। তবে এই সবই আসলে সিদ্ধার্থকে জব্দ করার পরিকল্পনা। মিঠাইয়ের স্পোকেন ইংলিশ ক্লাসের পার্টনার গোগোলকে অবিশ্বাস করে ও ভুল বোঝে সিদ্ধার্থ, আর পার্কের মধ্যে কলার ধরে তাঁকে মারার পাশাপাশি অনেক কথাও শোনায়। এই ঘটনার জন্য বাড়িতে সিদ্ধার্থকে নিয়ে বিচারসভা বসানো হয়েছিল, সেখানেই এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছিলেন দাদাই।

Advertisement
আরো পড়ুন -  ভাত অথবা রুটির সাথে খাবার জন্য নিরামিষ আলুর দম, রইল রেসিপি

গন্তব্যস্থলে পৌঁছে যাওয়ার পর থেকেই মিঠাই ভীষণ খুশি হয়ে গিয়েছে। যথারীতি বিভিন্ন রকম স্বপ্ন সে ইতিমধ্যেই দেখতে শুরু করে দিয়েছে। সাম্প্রতিকতম পর্বে দেখানো হয়েছে তেমনই কিছু দৃশ্য। গতকাল অর্থাৎ বুধবারের পর্বে হোটেলের বাথরুম গোলাপের পাঁপড়ি ও মোমবাতি দিয়ে সাজানো দেখে তাজ্জব হয়ে যায় মিঠাই। সিদ্ধার্থকে জিজ্ঞেসা করলে সে বিরক্ত হয়ে বলে এইসব বোকা বোকা ব্যাপারের জন্য‌ই হানিমুনের কনসেপ্টে সে বিশ্বাসী নয়। তারপর মিঠাই বাথরুমের দরজা লাগিয়ে দিয়ে বাথটাবের মধ্যে এক এক করে গোলাপের পাঁপড়ি ফেলতে থাকে এবং পৌঁছে যায় স্বপ্নজগতে।

স্বপ্নের জগতে পাহাড়ি এলাকায় এক বিস্তৃত চা-বাগানে ভরপুর রোম্যান্সে মজতে দেখা গিয়েছে মিঠাই ও তার উচ্ছেবাবুকে। সাদা-গোলাপী রঙের শিফন শাড়িতে মিঠাইয়ের সৌন্দর্য্য দেখে উচ্ছেবাবু মুগ্ধ হয়েছে। ধারাবাহিকে বিভিন্ন রোম্যান্টিক দৃশ্য দেখা গিয়েছে, মিঠাইয়ের পেটে মাথা দিয়ে রেখে সিডের শুয়ে থাকা; পেছন থেকে সিদ্ধার্থকে মিঠাইয়ের জড়িয়ে ধরা থেকে হাত দিয়ে মিঠাইয়ের চোখের সামনের চুল সরিয়ে মুখ কাছে টেনে নেওয়া; মিঠাইকে সিডের বুকে জড়িয়ে নেওয়া- এই সব দৃশ্যই দর্শকরা তারিয়ে তারিয়ে উপভোগ করেছেন। যদিও বাস্তবে এইসব দৃশ্যাপট‌ই মিঠাইয়ের দেখা ‘ডিরিম’ বা স্বপ্ন, কিন্তু তাও এইভাবে প্রিয় মিঠাই-সিডকে কাছাকাছি দেখতে পেয়ে দর্শকদের খুশির বাঁধ ভেঙেছে।

Advertisement