×
Categories
বিনোদন

স্টার কিড না হয়েও নিজের যোগ্যতায় বলিউডে সফলতা অর্জন করেছেন যে সমস্ত সেলেবরা

Advertisement

দেশের সব চাইতে গুরুত্বপূর্ণ, জনপ্রিয় এবং বিশালমাপের বিনোদন ক্ষেত্র হল, বলিউড। শুধু দেশ নয়, গোটা বিশ্বেও বলিউডের জনপ্রিয়তা আকাশছোঁয়া। তবে বলিউড চলচ্চিত্রে অভিনয় করার জন্যে মানুষকে অনেক তপস্যা করতে হয়, যাকে বলে স্ট্রাগল।এখানে অভিনয় করার জন্যে, সম্পূর্ণ অভিনয় করার দক্ষতার পাশাপাশি দরকার রূপ, লাস্যময়ী ফিগার নারী-পুরুষ নির্বিশেষে এবং অবশ্যই ‘গড ফাদার’। এছাড়া বলিউডে এরকম অনেক তারকা আছে যাদের পেছনে ‘গড ফাদার’ বর্তমান। সেই জোরেই বলিউডে আজ তাঁরা প্রতিষ্ঠিত। কারণ বলিউডে এমন প্রচুর নামকরা পরিবার আছে, যারা বংশ পরম্পরায় বলিউডে রাজ করছেন। কিন্তু যারা বলিউডের ‘Without God father’ এ রাজত্ব করছেন, জানেন কি তাঁরা কারা! হ্যাঁ, আজকে আমাদের আলোচ্য বিষয় এরকমই বলিউডে প্রতিষ্ঠিত নায়ক-নায়িকাদের নিয়ে, যারা ‘গড ফাদার’ ছাড়াই বলিউডে রাজ করছেন।

Advertisement

১. রাজকুমার রাও (Rajkumar Rao): তিনি হরিয়ানার গুড়গাঁও এ জন্মগ্রহণ করেছেন এক নিম্ন-মধ্যবিত্ত পরিবারে। সেখানেই তাঁর বেড়ে ওঠা। দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। এরপর রাজকুমার মুম্বইয়ে এসে, প্রথমেই দারুণ একটি সুযোগ পেয়ে যান, চলচ্চিত্রে অভিনয় করার। তাঁর ডেবিউ ছবি, ‘লাভ সেক্স অউর ধোঁকা’ (Love sex aur dhoka) (২০১০)র মাধ্যমে তাঁর অভিনয় জীবন শুরু হয়, তবে প্রথম ছবিতে কয়েকটি সংক্ষিপ্ত ভূমিকাতে অভিনয় করেন তিনি। এরপরেই তাঁর বড় চলচ্চিত্র ‘কাই পো চে’ (Kai Po che) তে (২০১৩) অভিনয় করার সুযোগ আসে। যেখানে তিনি পার্শ্ব-চরিত্রে দুর্দান্ত অভিনয় করেই শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার জিতে নেন। কোনও ‘গড ফাদার’ ছাড়াই এখন তিনি বলিউডে একজন প্রতিষ্ঠিত নায়ক।

Advertisement
আরো পড়ুন -  গোলাপি বিকিনিতে উথলে পড়ছে যৌবন, সোশ্যাল মিডিয়ায় উষ্ণতার পারদ চড়ালেন কিয়ারা আডবাণী

২. সিদ্ধার্থ মালহোত্রা (Siddharth Malhotra): বলিউডের একজন স্বনামধন্য নায়ক সিদ্ধার্থ মালহোত্রা। দিল্লীর একটি পাঞ্জাবী হিন্দু পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন সিদ্ধার্থ। মাত্র ১৮ বছর বয়সে মডেল হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেন তিনি। এরপর ২০১০ সালে করণ জোহরের সহকারী পরিচালক হিসেবে ‘মাই নেম ইজ খান’ (My name is khan) চলচ্চিত্রে কাজ করেন সিদ্ধার্থ। এরপর ২০১২ সালে করণ জোহর পরিচালিত ‘স্টুডেন্ট অফ দ্য ইয়ার’ (Student Of the year) এ অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি অভিনয় জীবনে পা রাখেন। যার দরুন তিনি ‘ফিল্মফেয়ার এওয়ার্ড ফর বেস্ট মেল ডেব্যু’ হিসেবে মনোনয়ন পান। এখন তিনি বলিউডে একজন প্রতিষ্ঠিত নায়ক, কোনও গড ফাদার ছাড়াই। তাঁকে শেষবার পর্দায় দেখা গিয়েছিল ‘শেরশাহ’ (Shershaah) ছবিতে।

৩. অনুষ্কা শর্মা (Anushka Sharma): বলিউডের প্রথম সারির অভিনেত্রীদের মধ্যে অন্যতম স্বনামধন্য অভিনেত্রী অনুষ্কা শর্মা। অনুষ্কার পিতা একজন কর্নেল ছিলেন, যাঁর নাম অজয় কুমার শর্মা। পড়াশোনা শেষ করেই মডেলিং-কে ক্যারিয়ার বানানোর স্বপ্ন নিয়ে মুম্বইয়ে আসেন অনুষ্কা। ল্যাকমি, সিল্ক এন্ড শাইন, হুইসপার, নাথিলা জুয়েলারী এবং ফিয়েট পিয়েলা-এর মডেল ছিলেন অনুষ্কা। এই মডেলিং থেকেই তিনি বলিউড ‘যশ রাজ’ (Yash Raj Films) ব্যানারে ছবি করার সুযোগ পেয়ে যান। অনুষ্কার প্রথম ছবি, আদিত্য চোপড়া পরিচালিত ‘রাব নে বানা দে জোড়ি’ (Rab Ne bana de jodi) (২০০৮)। যেখানে তিনি বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খান এর সঙ্গে জুটি বেঁধেছিলেন। কোনও গড ফাদার ছাড়াই তিনি বলিউডে প্রতিষ্ঠিত নায়িকা। সঙ্গে তিনি এখন ভারতীয় ক্রিকেটার বিরাট কোহলির স্ত্রী, এবং এক কন্যা সন্তানের মা।

আরো পড়ুন -  যেন ঐশ্বর্যর কপি পেস্ট! এই ৫ মহিলা অবিকল রাই সুন্দরীর মতো দেখতে, ছবি দেখে অবাক নেটবাসীরা

৪. প্রিয়াঙ্কা চোপড়া (Priyanka Chopra): যিনি এখন বলিউড এবং হলিউড একাধারে রাজত্ব করছেন। বিহারের জামশেদপুরে এক নিম্ন-মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন এই জনপ্রিয় নায়িকা। পড়াশোনা শেষ করে তিনি ২০০০ সালে ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ (Miss world) প্রতিযোগিতায় ভারতের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করে ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ উপাধি লাভ করেন। এরপর থেকেই বলিউডে তাঁর যাত্রা শুরু। কোনও গড ফাদার ছাড়াই আজ তিনি শুধু বলিউড নয় হলিউডেও অভিনেত্রী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত। প্রিয়াঙ্কা চোপড়া একজন চলচ্চিত্র অভিনেত্রীর পাশাপাশি লেখিকা এবং কণ্ঠশিল্পীও। হিন্দি চলচ্চিত্র ‘দ্য হিরো’ (The hero) ছবির মাধ্যমে তিনি বলিউডে প্রবেশ করেন। ২০০৪ সালে ‘আন্দাজ'(Andaaz) ছবির জন্য তিনি বলিউডে পাকাপোক্ত জায়গা বানিয়ে নেন। ২০০৮ সালে তিনি ‘ফ্যাশন'(Fashion) ছবির জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ও ফিল্মফেয়ার পুরস্কার লাভ করেন। ২০১৮ সালে তিনি হলিউড পপ সিঙ্গার নীক জোনাসকে (Nick Jonas) বিয়ে করেন।

৫. ঐশ্বর্য রাই বচ্চন (Aishwarya Rai Bachchan): ঐশ্বর্য রাই একজন জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত ভারতীয় অভিনেত্রী, সঙ্গে প্রাক্তন বিশ্ব সুন্দরীও। যদিও তিনি অভিনয় জগতে পদার্পণ করার আগে মডেলিং হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেন। বলিউডে একজন প্রভাবশালী নায়িকাদের মধ্যে ঐশ্বর্য অন্যতম, যিনি বলিউডে কোনো গড ফাদার ছাড়াই প্রতিষ্ঠিত। ১৯৯৪ সালে বিশ্ব সুন্দরী খেতাব অর্জন করার পরেই তিনি দেশজুড়ে ব্যাপক খ্যাতি অর্জন করেন। তাঁর অভিনীত চলচ্চিত্রের সংখ্যা পঞ্চাশটিরও অধিক। অভিনেত্রীর পাশাপাশি তাঁর অন্য পরিচয় তিনি বচ্চন পরিবারের জুনিয়র বচ্চনের স্ত্রী এবং এক কন্যা সন্তানের মাও।

৬. আয়ূষ্মান খুরানা (Ayushman Khurana): আয়ুষ্মান খুরানা চন্ডীগড়ে জন্মগ্রহণ করেন। চন্ডীগড়ের সেন্ট জন্স হাই স্কুল থেকে মাধ্যমিক স্তরের পড়াশোনা শেষ করেন অভিনেতা এবং ডাভ কলেজ থেকে ইংরেজি সাহিত্যে নিয়ে পড়াশোনা শেষ করেন। এরপর ২০১২ সালে রিয়্যালিটি শোয়ে সঞ্চালনার মাধ্যমে ক্যারিয়ার শুরু করেন অভিনেতা, এরপরেই সুজিত সরকার পরিচালিত রোমান্টিক কমেডি চলচ্চিত্র ‘ভিকি ডোনার’ (Vicky Donor) এ অভিনয়ের মাধ্যেম বলিউড অভিনয় জগতে পা রাখেন। তাঁর অভিনয় যথেষ্ট প্রশংসিত। এরপরে তাঁকে আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি। আজ তিনি বলিউডে কোনো গড ফাদার ছাড়াই বেশ প্রতিষ্ঠিত অভিনেতা, তাঁর অভিনীত চলচ্চিত্রের সংখ্যাও প্রচুর। অভিনয়ের পাশাপাশি তিনি একজন অসাধারণ গায়কও।

আরো পড়ুন -  যেসব নায়কের সাথে অভিনয় করার আগেই সোজাসুজি ‘না’ বলে দিয়েছিলেন অভিনেত্রী রশ্মিকা মন্দনা

৭. শাহরুখ খান (Shahrukh Khan): দেশের বিগেস্ট সুপারস্টার শাহরুখ খান। কোটি কোটি মানুষের ‘দিল কি ধরকান’ শাহরুখ খান। যার থেকে মানুষ প্রেম, ভালোবাসা শিখেছে। শুধু দেশ নয়, ভুবনজোড়া খ্যাতি তাঁর। যার অভিনীত ছবির ঝুলিতে এখনো পর্যন্ত ১০০ টির কাছাকাছি ছবি রয়েছে। কিন্তু শাহরুখের বলিউডে উত্থান কিন্তু খুব সহজ ছিলনা। তাঁর বাবা ছিলেন একজন ছোটোখাটো হোটেলের মালিক, খুব অল্পবয়সেই তিনি মা-বাবাকে হারিয়েছেন, এরপর অনেক স্ট্রাগল করে বড় হয়েছেন তিনি। চোখে একরাশ স্বপ্ন নিয়ে দিল্লী ছেড়ে মুম্বই পারি দেন তিনি। ১৯৮০-র দশকের শেষের দিকে বেশ কিছু টেলিভিশন ধারাবাহিকে অভিনয়ের মাধ্যমে শাহরুখ অভিনয় জীবন শুরু করেন। ১৯৯২ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘দিওয়ানা’ (Deewana) চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তিনি বলিউডে নিজের জায়গা পাকাপোক্ত বানিয়ে নেই। গড ফাদার ছাড়াই তিনি আজ শুধু বলিউড নয় গোটা বিশ্বের কাছে এক ইতিহাস সৃষ্টিকারী নাম।

Advertisement