×
Categories
বিনোদন

তথাকথিত সুন্দরী নন, জাতীয় পুরস্কার পেয়েও টলিউডে যোগ্য সম্মান থেকে বঞ্চিত হয়েছেন অভিনেত্রী অনন্যা চ্যাটার্জি!

Advertisement

সুবর্ণলতা নামটা বললেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে শ্যামলা মেয়ের কালো চোখে লাজুক চাহনি। অভিনেত্রী অনন্যা চট্টোপাধ্যায়। হাতে গোনা যে কয়েকটি ধারাবাহিক ও ছবিতে অভিনয় করেছেন সেগুলি এক একটি মাইলস্টোন। তার মধ্যে সবথেকে বেশি প্রশংসিত হয়েছে তার অভিনয়। নায়িকাসুলভ চেহারা নয় রয়েছে গ্রাম্য ভাব, তিনি অভিনেত্রী অনন্যা। জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন তবু টলিউডে জানো ব্রাত্য থেকে গেছেন তিনি। আজ কোথায় হারিয়ে গেছেন তিনি?

Advertisement
আরো পড়ুন -  বাংলা ভাষা উচ্চারণ নিয়ে নেটিজেনদের কটাক্ষের শিকার সুদীপা, উপযুক্ত জবাব দিলেন ‘রান্নাঘরের রাণী’

জি বাংলার একসময়ের জনপ্রিয় ধারাবাহিক সুবর্ণলতায় নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন অভিনেত্রী অনন্যা চট্টোপাধ্যায়। তার প্রথম ধারাবাহিক একদিন প্রতিদিন। বালিগঞ্জ করেছে স্নাতকোত্তর শেষ করবার পর মমতা শঙ্করের কাছে প্রথাগত নাচের তালিম নেন। সেখান থেকেই তার অভিনয় জগতে পদার্পণ। একের পর এক ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন। সেখান থেকে সুযোগ আসে বড় পর্দায়। টক-ঝাল-মিষ্টি ছবিতে অভিনয়ের জন্য জাতীয় পুরস্কার জিতে নেন। এছাড়া কমার্শিয়াল ছবি বলতে মামা ভাগ্নে। পরিচালক ঋতুপর্ণ ঘোষের জহুরির চোখ। তিনি তাই আসল রত্ন চিনতে পেরেছিলেন।কিন্তু সুযোগ আসলেও ঋতুপর্ণর ছবিতে অভিনয় করেননি অনন্যা।

Advertisement
আরো পড়ুন -  বামন যুবকের সাথে প্রেম করছেন পায়েল, প্রেম দিবসে নিজের সম্পর্কের কথা ফাঁস করলেন অভিনেত্রী নিজেই

ডান্স বাংলা ডান্সের অন্যতম বিচারক হিসেবে দেখা গিয়েছিল তাকে। জিতেছিলেন জাতীয় পুরস্কার। তার অভিনয়ের খ্যাতি তখন লোক মুখে ফিরত। কিন্তু হঠাৎ করেই যেন হারিয়ে যান অনন্যা। মাত্র চার বছরেই দাম্পত্য ভেঙে গিয়েছিল। একমাত্র সন্তানকে নিয়ে একা হয়ে গিয়েছিলেন অভিনেত্রী। এরপর তাকে একটি ওয়েব সিরিজে দেখা যায়। ‘মোহ মায়া’সিরিজে একজন মানসিক ভারসাম্যহীন গৃহবধূর ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন তিনি। কিন্তু দর্শকদের অভিযোগ ছিল পরিচালক দেবালয় ভট্টাচার্য ঠিকমতো কাজে লাগাননি অনন্যাকে। সেই তুলনায় অনেক বেশি প্রচারে এসেছেন স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। এমন বহু নামজাদা অভিনেত্রীদের ভিড়ে হারিয়ে গেছেন অদ্বিতীয়া অনন্যা।

আরো পড়ুন -  সাতপাকে বাঁধা পরতে চলেছেন প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণা, ভ্যালেন্টাইন্স ডে-তে বড়সড় ঘোষণা বুম্বাদার!
Advertisement