×
Categories
বিনোদন

ক্যান্সার মানেই মৃত্যু নয়, বিজয়ী ঐন্দ্রিলা আশ্বাস দিতে চান ক্যান্সার যোদ্ধাদের মনে

Advertisement

আজকালকার দিনে ক্যান্সারের মতো মারণরোগকে জয় করে ফিরে আসা অনেকটা দিগ্বিজয়ের মতোই। টেলিপাড়ার ঐন্দ্রিলা শর্মা হলেন এমনই একজন অন্যতম ব্যক্তিত্ব যিনি মণীষা কৈরালা, যুবরাজ সিংহের পরে ক্যান্সার বিজয়ী হয়ে ফিরে এসে একটি বিশাল অধ্যায় রচনা করেছেন। এই যুদ্ধে তাঁর পাশে ঢাল হয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন তাঁর কাছের মানুষ সব্যসাচী চৌধুরী। এই বিশ্ব ক্যান্সার দিবসে একটি সাক্ষাৎকারে ঐন্দ্রিলা জানালেন, “খুব ছোট বয়সে ক্যান্সার হওয়ায় প্রচন্ড পরিমানে ভেঙে পড়লেও দ্বিতীয়বারে সব্যসাচী যখন তাঁর আশ্বাসের হাতটা আমার কাঁধে রেখে ছিলেন। তখন থেকে সব ভয় দূর হয়ে যায় এবং আমি ফিরে আসতে পারি এই ভয়ঙ্কর মারণ রোগের হাত থেকে।”

Advertisement

জীবনটা নতুন করে ফিরে পেয়ে কেমন অনুভূতি তাঁর?
ঐন্দ্রিলার কথায়, প্রকৃতির সান্নিধ্যে নিঃশ্বাস নিতে পেরে অনেকটাই সুস্থ বোধ করছেন। এছাড়া সব্যসাচী যেভাবে ওঁর পাশে আছেন তা ভগবানের আশীর্বাদের। বাইরে বেরোনো শুরু করছেন ধীরে ধীরে। নতুন করে পৃথিবীকে দেখতে পেরে আলাদা রকমের ভালোলাগা তৈরি হয়েছে মনের মধ্যে। বেঁচে থাকা আবারও ভালোবাসায় পরিণত হয়েছে। তবে পৃথিবীটা যেন অনেকখানি বদলে গিয়েছে। তাঁকে দেখার দৃষ্টিভঙ্গি পাল্টে গিয়েছে মানুষের মধ্যে। যেই তাঁকে দেখেন সেই বলেন, “তোমার যুদ্ধ দেখে আমরা সত্যিই আপ্লুত। আমরা খুশি। শত কষ্টের মধ্যেও নতুন করে বাঁচার আশ্বাস তোমার থেকেই পাওয়া যায়”।

আরো পড়ুন -  নিতা আম্বানির গাড়ির কালেকশনে যুক্ত হল নতুন কার, আমেরিকা থেকে এলো এই গাড়ি

সারা বিশ্বে যে সমস্ত ক্যান্সার যোদ্ধারা ক্রমাগত যুদ্ধ করে চলেছেন তাদের উদ্দেশ্যে কী বলবেন ঐন্দ্রিলা?

Advertisement

আগামী দিন ঐন্দ্রিলার শুভ জন্মদিন। এইদিনেই দ্বিতীয়বার জন্মগ্রহণ করেন তিনি। এমত খুশিকে উৎযাপন করতে যোদ্ধাদের মনে আশ্বাস যোগাতে ঐন্দ্রিলা জানালেন, সারা বিশ্ব যখন ভাইরাসে আক্রান্ত বেশিরভাগ পরিবারের ক্যান্সারও থাবা বসিয়ে রাখছে। সেই ক্ষেত্রে বহু মানুষ তাঁদের প্রয়োজন যে হারিয়েছে বহু মানুষই চিকিৎসার অভাবে পৃথিবী ছেড়েছে। এই ক্ষেত্রে তিনি যদি কারোর কাছে অনুপ্রেরণামূলক হন অনেক বেশি খুশি হবেন ঐন্দ্রিলা। নতুন করে বাঁচতে শেখার আশ্বাস যোগাতে তিনি সর্বদাই প্রস্তুত। তিনি আরও জানান, সম্প্রতি একটি বিয়েবাড়িতে সুন্দর করে সেজে গিয়েছিলেন ক্যান্সার বিজয়ী অভিনেত্রী। তাঁর জন্য সেখানে এক মহিলাকে আবেগপ্রবণ হয়ে কাঁদতে দেখে ঐন্দ্রিলার সত্যিই মনে হয়েছিল নতুন করে পৃথিবীতে ফেরাটা তাঁর হয়ত সার্থক।

আরো পড়ুন -  ধারাবাহিক জগতে আজও হিট দিশা ও ভিভানের জুটি, অভিনেত্রীর রহস্যজনক মৃত্যুতে রয়ে গেছে শূন্যস্থান!

নতুন করে কর্মজগতে ফেরা নিয়ে কি প্ল্যান তাঁর?

আগামী মার্চেই ফ্লোরে ফিরছেন ঐন্দ্রিলা শর্মা। তবে ছোট পর্দার বদলে ওয়েভ সিরিজে দেখা যাবে তাঁকে। যথেষ্ট ডায়েট ও শরীরচর্চার মধ্যে মনোনিবেশ করেছেন তিনি। প্রসঙ্গত , প্রেমিক সব্যসাচীর মতো তিনিও বেশ ভালো নামজাদা অভিনেত্রী। ‛জিয়ন কাঠি’তে শেষবার দেখা গিয়েছিল ঐন্দ্রিলাকে। অবশ্য তাঁর ভাষায়, “ ক্যান্সার আমাকে একটু হলেও দমাতে পেরেছে। অভিনয় দক্ষতা হয়তো সীমিত হারিয়েছি। আর তার জন্য আমার বিশ্বাস আমি প্রশ্নের সম্মুখীন হব না। কারণ কম বেশি সবাই জানেন আমার দ্বিতীয়বার এই মারণরোগ হয়েছে। সব্যসাচী খুঁটিনাটি জানিয়েছে সবাইকে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে।” তাঁর ভাষায়, অনুরাগীরা তাঁর পাশে আছেন। এটা বেশ বুঝেছেন ঐন্দ্রিলা। তাই অভিনয় নিয়ে দুশ্চিন্তার কোনো কারণই নেই।

আরো পড়ুন -  'একটুও লজ্জা নেই'! গোয়ার সমুদ্র সৈকতে বিকিনি পরা ছবি পোস্ট করে ফের কটাক্ষের শিকার অভিনেত্রী মিশমী
Advertisement