×
Categories
ভাইরাল ভিডিও

সমুদ্রের পাড়ে দাঁড়িয়ে ‘সাগর কিনারে’ গাইলেন রানু মন্ডল, দেখুন ভিডিও

Advertisement

রানাঘাট স্টেশনে বসে ভিক্ষা করার সাথে সাথে গান‌ও গাইতেন রানু মন্ডল, সেখান থেকেই পথচারীদের নজরে আসেন তিনি। অতীন্দ্র নামক এক যুবক রানুর গান গাওয়ার ভিডিও রেকর্ড করে পোস্ট করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। তারপরে প্রবল ভাইরাল হয় সেই ভিডিও, সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ে রানুর প্রতিভার নিদর্শন, বাকিটা ইতিহাস। প্রখ্যাত সুরকার ও গায়ক হিমেশ রেশমিয়া রানুকে তাঁর সাথে গান গাওয়ার সুযোগ করে দেন। তাঁদের একসাথে গাওয়া ‘তেরি মেরি কাহানি’ গানটি মুক্তি পায় এবং সেই গান‌ও ভাইরাল হয়ে যায়। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে, রিয়েলিটি শোয়ের মঞ্চে দেখা যেতে থাকে রানুকে।

Advertisement
আরো পড়ুন -  বিবাহবার্ষিকীর রাতে ‘কাঁচা বাদাম’ গানে উদ্দাম নাচ নীল-তৃণার, ভাইরাল ভিডিও

কিন্তু ঠিক যে গতিতে রানু সাফল্য ও উন্নতির শিখরে পৌঁছে ছিলেন সে গতিতে তিনি আবার নীচে নেমে আসেন। তাঁর অসংলগ্ন কথাবার্তা ও অদ্ভুত আচরণ‌ই এর জন্য দায়ী। সবকিছু পেছনে ফেলে তাঁকে আবার ফিরে আসতে হয় রানাঘাটের বাড়িতে। এখন তাঁকে শুধুমাত্র সোশ্যাল মিডিয়াতে দেখতে পাওয়া যায়, তাও আবার অন্যদের দৌলতে। বিভিন্ন ইউটিউবার ও মিমাররা হাজির হয়ে থাকেন রানুর বাড়িতে। তাঁর সঙ্গে বিভিন্ন কথোপকথন বা তাঁর কিছু আচরণ বা গানের ভিডিও তাঁরা নিজেদের অ্যাকাউন্ট থেকে পোস্ট করেন। বস্তুত সেসব ভিডিওর বেশিরভাগই মুখোমুখি হয় সমালোচনার। ভিডিওগুলির কমেন্টবক্স ছেয়ে যায় বিদ্রূপাত্মক কমেন্টে এবং ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হতে থাকে সেইসব ভিডিও।

Advertisement
আরো পড়ুন -  ‘অর্ধনগ্ন কেন নগ্ন হয়ে নাচুন!’ বিকিনি পরে নেচে নোংরা কটাক্ষের শিকার উর্ফি জাভেদ, ভাইরাল ভিডিও

তবে কোনো কোনো ভিডিওতে রানুকে গান গাইতেও দেখা যায়, সেইসব ভিডিওতে বয়ে যায় প্রশংসার ঝড়। রানুর উল্টোপাল্টা কথা নিয়ে বেশিরভাগ সময় ট্রোল করা হলেও তাঁর প্রতিভার প্রশংসা করতে কেউই পিছপা হন না। সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে এমনই এক ভিডিও। সমুদ্র সৈকতে দাঁড়িয়ে এক জনপ্রিয় গান গাইতে দেখা গেছে রানুকে।

আরো পড়ুন -  বসন্ত উৎসবে ভুবন বাদ্যকরের ‘কাঁচাবাদাম’ গানে উদ্দাম নাচ গায়িকা ইমনের, দেখে নিন ভিডিও

সমুদ্রের সামনে দাঁড়িয়ে কমলা শাড়ি পরে ও সোনালী রঙের গয়নায় সেজে, খোলা চুলে রানু ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়ে সম্পূর্ণ খোলা গলায় দক্ষতার সঙ্গে ‘সাগর কিনারে’ গানটি পরিবেশন করেছেন। তবে সমুদ্রের হাওয়ার আওয়াজের জন্য সেভাবে তাঁর গানটি শোনা যায়নি। তবুও তাঁর গানের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে ইউটিউব ও সোশ্যাল মিডিয়ায়। রানুর কাছে কোনো মোবাইল ও টিভি না থাকা সত্ত্বেও তিনি নিজের চেষ্টায় যেভাবে গানগুলি পরিবেশন করেন, সেই বিষয়টির সকলেই প্রশংসা করে থাকেন, অন্যথা হয়নি এইবারেও।

Advertisement